• অক্টোবর ২৫, ২০১৮
  • জাতীয়
  • 70
ব্র্যান্ড ইমেজে ৫ ধাপ অগ্রগতি, ভারতের পরেই বাংলাদেশ

নিউজ ডেস্ক: দক্ষিণ এশিয়ার একমাত্র দেশ হিসেবে গত বছরের তুলনায় বাংলাদেশের ব্র্যান্ড ইমেজ বেড়েছে। মার্কিন প্রতিষ্ঠান ব্র্যান্ড ফাইন্যান্সের প্রকাশিত নেশন ব্র্যান্ডস-২০১৮ অনুযায়ী বাংলাদেশের ব্র্যান্ড ইমেজের আর্থিক মূল্য (ব্র্যান্ড ভ্যালু) ২৫ হাজার ৭০০ কোটি মার্কিন ডলার। এটি দক্ষিণ এশিয়ায় দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। একধাপ নিম্নগতি হলেও দক্ষিণ এশিয়ার শীর্ষ অবস্থানটি ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছে ভারত। তালিকায় তাদের অবস্থান নবম। গত বছরের তুলনায় ৫ ধাপ অগ্রগতির পর বাংলাদেশের অবস্থান ৩৯তম।

১০০ দেশের মধ্যে গবেষণা জরিপ চালিয়ে এ তথ্য দিয়েছে সংস্থাটি। পণ্য ও পরিষেবার মান, বিনিয়োগ এবং সমাজ- এই তিনটি প্রধান বিষয়ের ওপর ভিত্তি করে একটি দেশের ইমেজ বা ভাবমূর্তি নির্ণয় করে ব্র্যান্ড ফাইন্যান্স। এগুলো আবার পর্যটন, বাজার, সুশাসন এবং জনগণ ও দক্ষতা- এই চারটি বিষয়ের ওপর নির্ভর করে। তবে কোনও একটি দেশের ব্র্যান্ড ইমেজ নির্ভর করে সামগ্রিক অর্থনীতির ওপর। ইমেজ ভালো থাকলে বিশ্বে তাদের মান বাড়ে এবং বিনিয়োগ বাড়ে। ১৯৯৬ সাল থেকে এমন তালিকা প্রকাশ করছে ব্র্যান্ড ফাইন্যান্স।

তালিকায় দক্ষিণ এশিয়ার ৪ টি দেশ রয়েছে। এগুলো হচ্ছে বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা। এর মধ্যে ভারত ও বাংলাদেশ বিশ্বের ৫০টি গুরুত্বপূর্ণ ব্র্যান্ড ইমেজ সম্পন্ন দেশের তালিকায় স্থান পেয়েছে। আগের বছর বাংলাদেশের ব্র্যান্ড ইমেজের আর্থিক মূল্য ছিল ২০ হাজার ৮০০ কোটি ডলার। চলতি বছর সেটি প্রায় ৫ হাজার কোটি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৫ হাজার ৭০০ কোটি ডলারে। ভারতের ব্র্যান্ড ইমেজের আর্থিক মূল্য দক্ষিণ এশিয়ায় সর্বোচ্চ, ২ লাখ ১৫ হাজার ৯০০ কোটি ডলার। আর্থিক মূল্যের পাশাপাশি এই প্রতিবেদনে ‘এ’, ‘বি’ ও ‘সি’ ক্যাটাগরিতে ব্র্যান্ড রেটিং করা হয়েছে। বাংলাদেশ ২০১৭ সালে ‘এ মাইনাস’ ছিল। চলতি বছর ‘এ’ হয়েছে।

দক্ষিণ এশিয়ার অন্য দুটি দেশ পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার ইমেজও গত বছরের তুলনায় কমেছে। পাকিস্তানের অবস্থান এবার ৫১। গত বছর ছিল ৫০। অন্যদিকে শ্রীলঙ্কার অবস্থান এ বছর ৬১। গত বছর দেশটি ৫৯তম অবস্থানে ছিল। পাকিস্তানের ব্র্যান্ড ইমেজের আর্থিক মূল্য ১৯ হাজার ৬০০ কোটি ডলার। আর চলতি বছর শ্রীলঙ্কার ব্র্যান্ড ইমেজের আর্থিক মূল্য বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮ হাজার ৩০০ কোটি ডলারে, গত বছর যা ছিল ৭ হাজার ৭০০ কোটি ডলার।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, ব্র্যান্ড ইমেজের শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির ব্র্যান্ড ইমেজের আর্থিক মূল্য ২৫ লাখ ৮৯ হাজার ৯০০ কোটি ডলার। দ্বিতীয় অবস্থানে আছে চীন। দেশটির ব্র্যান্ড ইমেজের আর্থিক মূল্য ১২ লাখ ৭৭ হাজার ৯০০ কোটি ডলার। তারপরের শীর্ষ অবস্থানে আছে যথাক্রমে জার্মানি, যুক্তরাজ্য, জাপান, ফ্রান্স, কানাডা, ইতালি, ভারত ও দক্ষিণ কোরিয়া।