• ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৯
  • বিজ্ঞপ্তি
  • 22
জালালাবাদ কলেজের শিক্ষার্থীদের মধ্যে স্কলারশিপের চেক বিতরণ

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. রেজাউল ইসলাম বলেছেন, স্কলারশিপ শিক্ষার্থীদেরকে জীবনের লক্ষ্যে এগিয়ে নিতে সহায়তা করে। বাংলাদেশে ১৭০টি কলেজে কানাডা বাংলাদেশ এডুকেশন ট্রাস্ট্রের (সিবিইটি) এই বৃত্তি প্রদান করা হয়। যার মধ্যে সিলেটের অন্যতম জালালাবাদ কলেজ।

তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন, পড়াশোনায় বেশি নিতিবাচক মনোভাব পোষণ করো না। জীবনকে গড়তে হলে বইকে আকড়ে ধরতে হবে। বই তোমাকে তোমার জীবনের লক্ষ্যে পৌঁছে দেবে। ভালো কাপড় পড়ে রুচি, সম্মান বোধ তৈরি হয় না, রুচি-সম্মান তৈরি করতে হবে তোমার মন-মানসিকতায়, জ্ঞানে। গুণীজনকে সম্মান ও শ্রদ্ধা করতে হবে।

জালালাবাদ কলেজ সিলেটের শিক্ষার্থীদের মাঝে কানাডা বাংলাদেশ এডুকেশন ট্রাস্ট্রের (ঈইঊঞ) স্কলারশিপ ২০১৯ এর চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথাগুলো বলেন।

সোমবার (১১ ফেব্রুয়ারি) কলেজের হলরুমে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সিলেট শিক্ষা বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান ও জালালাবাদ কলেজের প্রিন্সিপাল প্রফেসর আব্দুল বাকী চৌধুরী। কলেজের সহকারী অধ্যাপক ছায়েম আহমদ চৌধুরীর পরিচালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন জালালাবাদ কলেজের সহকারী অধ্যাপক ও কলেজ কো-অর্ডিনেটর মুহাম্মদ আব্দুশ শাকুর।

প্রবাস থেকে অডিও বক্তব্য প্রদান করেন যুক্তরাজ্যের সিনিয়র সরকারি কর্মকর্তা, বাংলাদেশের সাবেক জজ কোর্টের বিচারক ও সিবিইটি বাংলাদেশর প্রধান সমন্বয়কারী আব্দুল মতিন। বক্তব্য রাখেন কলেজের সহকারী অধ্যাপক আয়েশা বেগম, মোহাম্মদ ঈমান আলী।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- কলেজের প্রভাষক সালমা, তাহমিনা পারভিন, ফাহিমা সুলতানা চৌধুরী, নাহিদা বেগম, জান্নাতুল ফেরদৌস তৃষ্ণা, মাহমুদুল হাসান বান্না, কানিজ ফাতেমা চৌধুরী, তাহসিন সিদ্দিকা, ফারুক আহমদ, ইশরাক জাহান। ২০১৯ সালের বৃত্তির প্রথম কিস্তির পাঁচ হাজার টাকার চেক ৫ জন শিক্ষাদের মধ্যে প্রেদান করা হয়।

বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা হলো- সৈয়দা ইলমুন নাহার তাকিয়া, মো. জুনায়েদ আহমদ, মেহরাব উদ্দিন ইমন, মো. রাজন ভূঁইয়া, মুস্তাকিম আহমদ। ব্যবসায় শিক্ষার ছাত্র শাহ সুফিয়ানের কুরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু হয়।