• মার্চ ৩, ২০১৯
  • শীর্ষ খবর
  • 16
সিলেটে আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা ৯ মার্চ থেকে

নিজস্ব প্রতিবেদক: আগামী ৯ মার্চ (শনিবার) থেকে সিলেটে শুরু হবে আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা। ওইদিন বিকাল ৩টায় মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হবে।

বাংলাদেশের বড় বড় পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান এবং ভারত, চীন, মিশর, থাইল্যান্ড, কাশ্মীর ও পাকিস্তানসহ বিশ্বের আরো বিভিন্ন দেশ এই মেলায় অংশগ্রহণ করবে। এবারের ৫ম আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলাটি দর্শনার্থী ও ক্রেতাদের জন্য অত্যন্ত আকর্ষণীয় এবং মনোমুগ্ধকর পরিবেশে আয়োজনের সকল ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

রবিবার (৩ মার্চ) সিলেট মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সহ-সভাপতি ও সিলেট ৫ম আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা-২০১৯ এর আহবায়ক মো. আব্দুল জব্বার জলিল এসব তথ্য জানান।

সংবাদ সম্মেলনে আব্দুল জব্বার জলিল লিখিত বক্তব্যে বলেন, সিলেট মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি কর্তৃক আয়োজিত প্রতি বছরের ন্যায় এবারো বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও শাহী ঈদগাহ উপজেলা মাঠ কর্তৃপক্ষ সিলেট সদর উপজেলার অনুমোদনে এ মেলা হবে। জেলা প্রশাসন ও সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতায় সিলেট মেট্রোপলিটন চেম্বারের উদ্যোগে এবং সরাসরি তত্ত্বাবধানে মাসব্যাপী বাণিজ্যমেলা অনুষ্ঠিত হবে। স্থানীয় ও জাতীয় শিল্প উদ্যোগতাদের প্রস্তুতকৃত বিভিন্ন পণ্যসামগ্রীর প্রচার ও প্রসারের জন্য এবং বিদেশি বিভিন্ন পণ্যের সহিত দেশীয় পণ্যের গুনগত মান যাচাই করাসহ নতুন নতুন তরুণ উদ্যোক্তা তৈরির লক্ষ্যে মেলার আয়োজন করা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, প্রবাসী অধ্যুষিত সিলেট অঞ্চলের স্থানীয় ব্যবসায়ী, তৃণমূল নারী উদ্যোক্তা ও তরুন উদ্যোক্তা ব্যবসায়ীদের উৎসাহ দেয়ার লক্ষ্যে দেশি ও বিদেশি সম্মিলিত অংশগ্রহণে বাণিজ্যমেলা হবে আকর্ষণীয়। বাণিজ্যমেলায় সমাজের অবহেলিত সম্প্রদায়কে পূনর্বাসনে সহায়তার জন্য এবং তাদেরকে কর্মমুখী করার লক্ষ্যে প্রতিবছরের ন্যায় এবারও ফ্রি স্টল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। শিশুদের বিনোদনের জন্য শিশুপার্ক ও বিভিন্ন আকর্ষণীয় এবং অত্যাধুনিক বিনোদনমূলক ইভেন্টের ব্যবস্থা রয়েছে। মেলার মাঠ প্রাঙ্গণে পুরুষ ও নারীদের সুবিধার জন্য আলাদা আলাদা মসজিদ ও ওয়াশরুমের ব্যবস্থা থাকছে।

মাঠের নিরাপত্তার জন্য সরকারি বিভিন্ন নিরাপত্তা বাহিনীর পাশাপাশি থাকবে আমাদের নিজস্ব পোষাকধারী নিরাপত্তা কর্মীবাহিনী। এছাড়াও সারা মাঠজুড়ে থাকবে সিসি ক্যামেরা। রাস্তা ও পার্কিংয়ের শৃঙ্খলার দ্বায়িত্বে থাকবে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক পূলিশ ও আমাদের নিজস্ব নিরাপত্তা কর্মীবাহিনী। সার্বক্ষণিক নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য থাকবে জেনারেটরের ব্যবস্থা। সাংবাদিকদের জন্য মাঠ প্রাঙ্গণে একটি মিডিয়া সেল রুমের ব্যবস্থা রয়েছে। এছাড়াও দর্শনার্থীদের মনোরঞ্জনের জন্য বিভিন্ন সময় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন থাকবে। মেলার আকর্ষণীয় কার্যক্রমসমূহ সিলেট ক্যাবল সিস্টেম (প্রাঃ) লিঃ (এসসিএস) এর মাধ্যমে সরাসরি সম্প্রচার করা হবে।

বাণিজ্যমেলায় প্রতিবন্ধীদের জন্য প্রবেশ পাসসহ শিশুদের বিনোদনের সকল ইভেন্ট প্রতিবন্ধী শিশুদের ফ্রি ব্যবহারের ব্যবস্থা রয়েছে। প্রতিবন্ধীদের জন্য নির্ধারিত পরিচয়পত্র প্রদর্শনপূর্বক পাসকার্ড মেলার গেইট অথবা অফিস চলাকালীন সময় অফিস থেকে সংগ্রহ করা যাবে।

সংবাদ সম্মেলমে আব্দুল জব্বার জলিল বাণিজ্যমেলা সফলের জন্য সকলের সহযোগীতা কামনা করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- সিলেট মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির (এসএমসিসিআই) সভাপতি হাসিন আহমদ, সহ-সভাপতি হুরায়রা ইফতার হোসেন, প্রাক্তন পরিচালক শফিউল আলম চৌধুরী, মাওলানা খায়রুল হোসেন, পরিচালক মাহবুবুর রহমান, জালাল উদ্দিন আহমদ, আলীমুছ ছাদাত চৌধুরী, মাহমুদ বক্স রাজন, মাসুদ জামান, কাজী মকবুল হোসেন, মো. ইলিয়াছুর রহমান, রাজীব ভৌমিক, শাব্বির আহমদ, শাহ আলম, মেলার সমন্বয়ক এম এ মঈন খাঁন বাবলু, সচিব মো. জাহাঙ্গীর হোসেন প্রমুখ।