• মে ২৯, ২০১৯
  • মৌলভীবাজার
  • 17
বড়লেখায় নারী আইনজীবী খুন: সেই ইমামের ব্যাগ থেকে পাওয়া গেল নিহতের মোবাইল ফোন

বড়লেখা প্রতিনিধি: মৌলভীবাজারের বড়লেখায় খুন হওয়া আইনজীবী আবিদা সুলতানার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় ১০ দিনের রিমান্ডে থাকা মসজিদের ইমাম তানভীর আহমদের তথ্যের ভিত্তিতে তারই ব্যবহৃত ব্যাগ থেকে মোবাইল ফোনটি উদ্ধার করে পুলিশ।

মঙ্গলবার (২৮ মে) সন্ধ্যার দিকে শ্রীমঙ্গল উপজেলার বরুণা মাদ্রাসা এলাকার একটি বাসা থেকে ইমাম তানভীর আলমের ব্যাগ থেকে ফোনটি উদ্ধার করা হয়।

১০ দিনের রিমান্ডে থাকা তানভীরের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ এই ফোন উদ্ধার করে। এসময় তানভীর সঙ্গে ছিলেন। এর আগে সোমবার (২৭ মে) এ বাসা থেকে তানভীর আলমকে আটক করা হয়েছিল।

শ্রীমঙ্গল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুছ ছালেক জানান- আসামি তানভীর রোজার এতেকাফের কথা বলে বরুণা এলাকায় একটি বাসায় আশ্রয় নিয়েছিলেন। তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে সেই বাসা থেকে আবিদার ফোন উদ্ধার করা হয়।

রবিবার (২৬ মে) রাত আড়াইটার দিকে উপজেলার দক্ষিণভাগ উত্তর ইউপির মাধবগুল গ্রামের মৃত আব্দুল কাইয়ুমের মেয়ে মৌলভীবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য আবিদা সুলতানার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। রোববার দুপুর ১২টা থেকে রাত ৮টার মধ্যে যেকোনো সময় তাকে হত্যা করে ঘরে বন্দি করে রাখা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এদিকে, ঘটনার পর আবিদার পৈতৃক বাড়িতে থাকা ভাড়াটিয়া তানভীর আহমদ পালিয়ে যান। তিনি স্থানীয় একটি মসজিদে ইমামতি করতেন। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে সোমবার (২৮ মে) দুপুরে শ্রীমঙ্গল উপজেলার কালাপুর ইউপির বরুনা এলাকা থেকে তানভীরকে আটক করে শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশ।

এর আগে তানভীরের মা ও স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে পুলিশ। পরে মঙ্গলবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তামভীরকে ১০ দিন ও তার স্ত্রী ও মাকে ৮ দিনের রিমান্ডে নেয় পুলিশ।