• জুলাই ৫, ২০১৯
  • খেলাধুলা
  • 25
শুরু ডারবানে, শেষ টানবেন লর্ডসে!

ক্রীড়া ডেস্কঃ ২০১৭ সালে শ্রীলঙ্কার কলম্বোতে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি থেকেও আচমকা অবসর নিয়েছিলেন মাশরাফি। টসের আগে নিজের ফেসবুক পাতায় আর টসের সময় দিয়েছিলেন অবসরের ঘোষণা। ওয়ানডেতেও তেমনটি ঘটার সম্ভাবনা এখন একেবারে উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। লর্ডসেই কি শেষ হচ্ছে মাশরাফির ক্যারিয়ার?

এমন প্রশ্নের উত্তর সময়ের হাতে তোলা থাক। তবে, মাশরাফির একটা অধ্যায় আজ শেষ হয়ে যাচ্ছে। পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শেষ হচ্ছে বাংলাদেশের এবারের বিশ্বকাপ। সেই সাথে শেষ হচ্ছে মাশরাফির বিশ্বকাপও। এটা ম্যাশ আগেই জানিয়েছিলেন। দেশ থেকে যাওয়ার আগে বলেছিলেন, এবারের পর বিশ্বকাপ আর খেলবেন না। পাকিস্তানের বিপক্ষে তাই এই ম্যাচটিই বিশ্বকাপে নড়াইল এক্সপ্রেসের শেষ ম্যাচ।

ভারতের কাছে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নেয় বাংলাদেশ। ক্রিকেটের সবচেয়ে ঐতিহ্যবাহী মাঠ লর্ডসে এবারের বিশ্বকাপে আজ বাংলাদেশ খেলতে নামছে শেষ ম্যাচ। টাইগারদের দিন বদলের সেনাপতি অধিনায়ক মাশরাফিরও শেষ বিশ্বকাপ ম্যাচ।

হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে এই বিশ্বকাপে নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি ম্যাশ। পাকিস্তানের বিপক্ষে নামার আগে সাত ম্যাচের মাত্র একটিতেই পুরো ১০ ওভার বোলিং করেছেন। এর মধ্যেই ৩১৫ রান দিয়ে পেয়েছেন মাত্র ১ উইকেট। তাতে সমালোচনা থেমে থাকেনি। কেউ বুঝেনি এই চোট নিয়ে বিশ্বকাপের মতো বড় আসরে খেলাটা ঝুঁকি। সব সমালোচনায় নীরব থেকেছেন মাশরাফি। দলকে এ সূতোয় বেঁধে এগিয়ে গিয়েছেন একের পর এক ম্যাচ।

দক্ষিণ আফ্রিকা বিশ্বকাপে ডারবানে কানাডার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হয়েছিল মাশরাফির বিশ্বকাপ যাত্রা। সেই যাত্রা শেষ হচ্ছে আজ লর্ডসে পাকিস্তানের বিপক্ষে। ক্রিকেটের তীর্থভূমি বলা হয় লর্ডসকে। ঐতিহ্যবাহী স্টেডিয়ামটির ব্যালকনিতে ভারতের সাবেক দলপতি সৌরভ গাঙ্গুলির জার্সি ওড়ানোর দৃশ্য সবার মনে দাগ কেটেছে। পাকিস্তান ম্যাচের আগের দিন মাশরাফিকেও দেখা গেছে সেই ব্যালকনিতে।

আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে না গিয়ে মাশরাফি বিষণ্ণ মনে দাঁড়িয়েছিলেন সেই ব্যালকনিতে। বিশ্বকাপে নিজের শেষ ম্যাচ খেলতে যাচ্ছেন বলেই হয়তো তার এই বিষণ্ণতা?