• আগস্ট ৪, ২০১৯
  • জাতীয়
  • 61
‘বাচ্চা ছেলে হিসেবে হয়তো বড় ভুল করেছে নোবেল’: এম এ মান্নান

নিউজ ডেস্কঃ বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত নিয়ে ‘সা রে গা মা পা-২০১৯’ এর দ্বিতীয় রানারআপ মাঈনুল আহসান নোবেলের একটি মন্তব্যের বিষয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, নোবেল জাতীয় সংগীত নিয়ে যে বক্তব্য দিয়েছে তা ঠিক হয়নি। বাচ্চা ছেলে হিসেবে হয়তো এটা বড় ভুল করেছে। তরুণ প্রজন্মকে এসব ভ্রান্তি থেকে দূরে থাকতে হবে।

রোববার (৪ আগস্ট) রাজধানীর একটি হোটেলে এক আলোচনাসভায় বক্তৃতাকালে মন্ত্রী একথা বলেন। ‘বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ’ শীর্ষক এ সভার আয়োজন করে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট।

ভারতের জি বাংলার গানবিষয়ক রিয়েলিটি শো ‘সা রে গা মা পা-২০১৯’ এ দ্বিতীয় রানারআপ হন নোবেল। সম্প্রতি তার একটি বক্তব্য নিয়ে সামাজিক যোগাযোগের বিভিন্ন মাধ্যমে সমালোচনা শুরু হয়। নোবেল এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘রবীন্দ্রনাথের লেখা জাতীয় সংগীত “আমার সোনার বাংলা” যতটা না দেশকে প্রকাশ করে, তার চেয়ে কয়েক হাজার গুণ বেশি প্রকাশ করে প্রিন্স মাহমুদ স্যারের লেখা “বাংলাদেশ” গানটি।’

এ বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, আজকাল আমাদের জাতীয় সংগীত নিয়েও ষড়যন্ত্র হচ্ছে। নোবেল আমাদের জাতীয় সংগীত নিয়ে বাজে মন্তব্য করেছে। কার উসকানিতে নোবেল এগুলো করছে, কেন করছে, কেনইবা জাতীয় সংগীত নিয়ে ষড়যন্ত্র হচ্ছে, তা আমাদের জানা আছে।

এম এ মান্নান বলেন, পৃথিবীতে ৩০ কোটিরও বেশি মানুষ বাংলা ভাষায় কথা বলে। কিন্তু বাংলা ভাষা ও বাংলার ঐতিহ্য টিকিয়ে রেখেছেন বাংলাদেশিরা। কণ্ঠশিল্পী নোবেল জাতীয় সংগীত নিয়ে যে বক্তব্য দিয়েছে তা ঠিক হয়নি। বাচ্চা ছেলে হিসেবে হয়তো এটা বড় ভুল করেছে। তরুণ প্রজন্মকে এসব ভ্রান্তি থেকে দূরে থাকতে হবে। কলকাতার বাঙালিরা প্রকৃত বাঙালি নন, তারা বিশাল ভারত সাগরে হাবুডুবু খাচ্ছে। তাদের দিয়ে বাঙালি সংস্কৃতি রক্ষা করা সম্ভব নয়। পৃথিবীর প্রকৃত বাঙালিরা একমাত্র বাংলাদেশেই বাস করে। অন্য বাঙালিরা আমাদের ভাই।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, শিক্ষা সংস্কৃতি, কৃষি, শিল্প সব জায়গায় যে যেখানে আছি সেখান থেকেই প্রতিদিন কাজ করে যেতে হবে। তাহলে দারিদ্র্যমুক্ত দেশ গড়ে ওঠবে। বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে চলচ্চিত্রের সম্পর্ক নিবিড়। আর সেজন্যই তিনি এফডিসি প্রতিষ্ঠা করেছেন। ফলে চলচ্চিত্র শিল্প গড়ে ওঠেছে।

বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সহ-সভাপতি রেদুয়ান খন্দকারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব আহসান উল্লাহ মনি, প্রিয়াংকা গ্রুপের চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান সজল প্রমুখ।