• সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৯
  • সুনামগঞ্জ
  • 40
দিরাইয়ে নৌকা ডুবি: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৯, নিখোঁজ ১

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার রফিনগর ইউনিয়নের কালিয়াকুঠা হাওরে মঙ্গলবারের নৌকাডুবির ঘটনায় ২ শিশুসহ আরও ৫ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ পর্যন্ত শিশুসহ ৯ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তাছমিনা (১১) নামে এক শিশু নিখোঁজ রয়েছে।

স্থানীয় লোকজন ও ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলের সহায়তায় হাওর থেকে লাশগুলো উদ্ধার করে দিরাই থানা পুলিশ।

নিহতরা হলো, নোয়ারচর গ্রামের আফাজলের পুত্র আসাদ (৫) স্ত্রী আজিরুন নেছা (৩০), মাছিমপুর গ্রামের জাসদ আলীর মেয়ে শান্তা (৩), একই গ্রামের আরজ আলীর স্ত্রী রৈতুন নেছা (৩৫) ও চরনারচর ইউনিয়নের পেরুয়া গ্রামের নজিবুল্লার স্ত্রী করিমা বেগম(৬২)।

এ ঘটনায় এপর্যন্ত ৬ শিশুসহ মোট ৯ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়া নিখোঁজ রয়েছে আরও অন্তত ১ জন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দিরাই থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কেএম নজরুল।

মর্মান্তিক এ নৌকাডুবিতে নোয়ারচর গ্রামের আফাজলের স্ত্রী আজিরুন নেছা (৩০) ও ২ শিশুপুত্র মারা যায়।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলার রফিনগর ইউনিয়নের মাছিমপুর গ্রাম থেকে চরনারচর ইউনিয়নের পেরুয়া গ্রামে নিকটাত্মীয়ের বাড়িতে বিবাহ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাবার পথে নাইওরিসহ যাত্রীবোঝাই ইঞ্জিনিচালিত নৌকাটি কালিয়াকুটা হাওরের আইনুল বিলের পাশে ঝড়ের কবলে পড়ে ডুবে যায়।

খবর পেয়ে এলাকাবাসী উদ্ধার অভিযান চালিয়ে রাতে ৪ শিশুর লাশ উদ্ধার করে। এরপর ভোরে থেকে আবারও উদ্ধার অভিযান শুরু করে ২ শিশু ও ৩ মহিলার লাশ উদ্ধার করা হয়।

ওসি কে এম নজরুল তিনি জানান, বৈরী আবহাওয়া এবং অন্ধকারের কারণে রাতে উদ্ধার অভিযান ব্যাহত হয়৷ ভোর থেকে ফের উদ্ধার অভিযান শুরু করলে আরও ৫টি লাশ পাওয়া যায়। এঘটনায় মোট ৯ জনের মৃত্যুর বিষয় নিশ্চিত করে ওসি জানান, এখনো মাছিমপুর গ্রামের তাছমিনা (১১) নিখোঁজ রয়েছে।