• নভেম্বর ২৮, ২০১৯
  • রাজনীতি
  • 49
মির্জা ফখরুল-আবাস-গয়েশ্বরের হাইকোর্টে আগাম জামিন

নিউজ ডেস্কঃ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে রাজধানীর সুপ্রিমকোর্ট এলাকায় গাড়ি ভাঙচুর ও পুলিশের ওপর হামলার ঘটনার মামলায় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ চার নেতাকে আট সপ্তাহের আগাম জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট।

হাজির হয়ে জামিন আবেদনের পর বৃহস্পতিবার (২৮ নভেম্বর) বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন ও বিচারপতি মো. রিয়াজ উদ্দিন খানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

এই সময়ের মধ্যে তাদের নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করতে হবে।

মির্জা ফখরুল ছাড়া অন্যরা হলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও আইন সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল।

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন, জয়নুল আবেদীন, নিতাই রায় চৌধুরী, মাহবুব উদ্দিন খোকন ও রুহুল কুদ্দুস কাজল।

রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল হারুনুর রশীদ।

মঙ্গলবার ২৬ নভেম্বর দুপুরে বিএনপির নেতাকর্মীরা খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সুপ্রিমকোর্টের সামনের রাস্তায় অবস্থান নেন। এরপর পুলিশ তাদের সরিয়ে দিতে লাঠিচার্জ ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। পুলিশের ধাওয়ায় নেতাকর্মীরা পালিয়ে যাওয়ার সময় রাস্তায় বেশ কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর করেন।

ঘটনার দিনগত রাতে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ ৫শ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে শাহবাগ থানায় পুলিশ বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করে, মামলার নম্বর-৩২।

এই মামলায় বুধবার (২৭ নভেম্বর) সকালে মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি ইশতিয়াক আজিজ উলফাতকে গ্রেফতার করা হয়।

শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসান বাংলানিউজকে জানান, মঙ্গলবার পুলিশের ওপর হামলা ও গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ ৫শ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ওসি আবুল হাসান আরও জানান, বুধবার সকালে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এলাকা থেকে মুক্তিযোদ্ধা দলের সভাপতি ইশতিয়াক আজিজ উলফাতকে গ্রেফতার করা হয়।

এদিকে এ মামলায় বৃহস্পতিবার বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ ও যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।