• মে ১০, ২০২০
  • শীর্ষ খবর
  • 318
বানিয়াচংয়ে উন্মুক্ত লটারীর মাধ্যমে ধান সংগ্রহে কৃষক বাছাই

বানিয়াচং প্রতিনিধিঃ বানিয়াচং উপজেলায় চলতি বছর সরকারিভাবে বোরো ধান ক্রয় হবে ৪ হাজার ৭শ ১৬ মেট্রিকটন। ইতিমধ্যে উপজেলা কৃষি অফিসের মাধ্যমে ১৬ হাজার ১শ ৬০জন কৃষকের তালিকা প্রস্তুত করে শতভাগ স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে ধান ক্রয় করার লক্ষ্যে রবিবার (১০মে) দুপুরে উপজেলা পরিষদ মাঠে উন্মুক্ত লটারীর মাধ্যমে কৃষক বাছাই করা হয়।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মামুন খন্দকারের সভাপতিত্বে ও উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা মোঃ খবির উদ্দিনের পরিচালনায় উন্মুক্ত লটারী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বানিয়াচং-আজমিরীগঞ্জ (হবিগঞ্জ-২) আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ খান।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম চৌধুরী, বানিয়াচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ এমরান হোসেন, ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ ফারুক আমিন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হাসিনা আক্তার, কৃষি কর্মকর্তা মোহাম্মদ দুলাল উদ্দিন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আব্দুল মজিদ খান বলেন, শতভাগ স্বচ্ছতার লক্ষ্যে গত বছর আমরা উন্মুক্ত লটারীর মাধ্যমে কৃষক নির্বাচন করে তাদের কাছ থেকে ধান সংগ্রহ করি, এরই ধারাবাহিকতায় এবছরও আমরা উন্মুক্ত লটারীর মাধ্যমে ইউনিয়নে সীমাবদ্ধ না রেখে ওয়ার্ডভিত্তিক লটারিতে কৃষক বাছাই করা হচ্ছে যাতে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক পর্যায়ের কৃষকগণও সুযোগ পায়।

তিনি আরও বলেন, আমরা চাই লটারীর মাধ্যমে নির্বাচিত কৃষক নিজে গিয়ে তার ধান খাদ্য গুদামে দিয়ে আসবে। যথাযথ প্রক্রিয়ার ধান দেয়ার পরও যদি কোন কৃষক হয়রানীর শিকার হয় সেক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। কোন অবস্থাতেই যেন কৃষক প্রতারিত না হয় সে ব্যাপারে সজাগ দৃষ্টি রাখতে উপজেলা খাদ্য সংগ্রহ কমিটির নেতৃবৃন্দকে নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কাশেম চৌধুরী বলেন, আপনাদের জনপ্রতিনিধি হিসেবে আমি স্পষ্ট ভাষায় বলতে চাই, ধান সংগ্রহের বিষয়ে আমাদের পক্ষ থেকে নূন্যতম কাউকে ছাড় দেয়া হবে না, কেবলমাত্র লটারীর মাধ্যমে নির্বাচিত কৃষকগন স্বশরীরে উপস্থিত হয়ে তাদের ধান খাদ্য গুদামে দিয়ে আসবেন, ধান সংগ্রহে কোন অনিয়ম পরিলক্ষিত হলে মাননীয় এমপি মহোদয়ের নির্দেশ মোতাবেক তা কঠোরভাবে দমন করা হবে। শতভাগ স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় কৃষকদের কাছ থেকে ধান নেয়া হবে, এ লক্ষ্যে আমাদের সকল প্রস্তুতি ইতিমধ্যে সম্পন্ন করা হয়েছে। সভাপতির বক্তব্যে ইউএনও মামুন খন্দকার বলেন, লটারীর মাধ্যমে নির্বাচিত কৃষকদের কাছ থেকে ধান ক্রয়ের লক্ষ্যে উপজেলা প্রশাসনের সর্বাত্মক সহযোগিতা থাকবে, কোন অনিয়ম পরিলক্ষিত হলে প্রয়োজন বোধে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। কোনো কৃষক যেন ধান দিতে গিয়ে হয়রানীর শিকার না হয় এ বিষয়টি কঠোরভাবে মনিটরিং করা হবে।

এদিকে অনুষ্ঠানে বানিয়াচং মৎস্য অফিসের আয়োজনে অসহায়দের মধ্যে মাছও বিতরণ করেছেন বানিয়াচং-আজমিরীগঞ্জ (হবিগঞ্জ-২) আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ খান।

উল্লেখ্য, এবছর সরকারীভাবে উপজেলার ১৫টি ইউনিয়নের ২ হাজার ৫শ ৬জন কৃষকদের কাছ থেকে ৪ হাজার ৭শ ১৬ মেট্টিকটন ধান ক্রয় করা হবে। আগামী ৩১ আগষ্ট পর্যন্ত কৃষক খাদ্য গুদামে ধান দিতে পারবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •