• আগস্ট ১৬, ২০২০
  • শীর্ষ খবর
  • 232
প্রায় ৫ মাস পর ঢাকা-সিলেট রুটে নামলো পারাবত

নিউজ ডেস্কঃ করোনাকালে বন্ধ থাকার প্রায় ৫ মাস পর (১৪৪ দিন) ঢাকা-সিলেট রুটে পারাবত চলাচল শুরু করেছে আন্তঃনগর পারাবত এক্সপ্রেস। রোববার (১৬ আগস্ট) বিকেল ৩টা ৪৫ মিনিটে ট্রেনটি ঢাকার উদ্দেশ্যে সিলেট ছেড়ে গেছে।

এর আগে সকাল ৬টা ২৪ মিনিটে ঢাকা থেকে ছেড়ে ১টায় সিলেটে এসে পৌঁছায়।

সিলেট রেলওয়ে স্টেশন ব্যবস্থাপক খলিলুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, করোনাকালে গত ২৪ মার্চ পারাবত এক্সপ্রেস বন্ধ করা হয়েছিল। প্রায় ৫ মাস তথা ১৪৪ দিন পর ট্রেনটি আবারও চালু হলো।

তিনি বলেন, সিলেট চট্রগ্রাম রেলপথে আন্তঃনগর ছয়টি ট্রেন চলাচল করতো। এরমধ্যে ঢাকা রুটে কালনী, জয়ন্তিকা, পাহাড়িকা ও উপবন এক্সপ্রেস। চট্টগ্রাম রুটে চলতো আন্তঃনগর পাহাড়িকা ও উদয়ন এক্সপ্রেস।

করোনায় সবক’টি ট্রেন বন্ধ রাখা হয়। এরইমধ্যে ঢাকা রুটে আন্তঃনগর কালনী ও চট্টগ্রাম রুটে আন্তঃনগর পাহাড়িকা এক্সপ্রেস চালু করা হয়। আর রোববার থেকে ১৬টি কোচ নিয়ে যাত্রী পরিবহন শুরু করেছে আন্তঃনগর পারাবত এক্সপ্রেস।

সংশ্লিষ্টরা জানান, করোনা পরিস্থিতির কারণে গেলো ২৪ মার্চ থেকে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। স্থবির হয়ে পড়া রেল চলাচল আস্তে আস্তে স্বাভাবিক হচ্ছে। নতুন করে সারাদেশে আরও ১২ জোড়া আন্তঃনগর এবং এক জোড়া কমিউটার ট্রেন পরিচালনা করছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। এরই ধারাবাহিকতায় রোববার (১৬ আগস্ট) থেকে ঢাকা-সিলেট রুটে পারাবাত এক্সপ্রেস চলাচল শুরু হয়েছে।

বাংলাদেশ রেলওয়ে সূত্র জানায়, বর্তমানের মোট ১৭ জোড়া ট্রেন চলাচল করছে। রোববার রেলের বহরে যুক্ত হলো আরও ১৩ জোড়া ট্রেন। সব মিলিয়ে এখন চলাচল করা ট্রেনের সংখ্যা গিয়ে দাঁড়ালো ৩০ জোড়ায়। গত ৩১ মে প্রথম দফায় আট জোড়া আন্তঃনগর ট্রেন চালু করা হয়। ৩ জুন দ্বিতীয় দফায় আরও ১১ জোড়া আন্তঃনগর ট্রেন বাড়ানো হয়। বর্তমানে সব মিলিয়ে এখন চলাচল করা ট্রেনের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩০ জোড়া অর্থাৎ ৬০টি।

রেল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, আন্তঃনগর ট্রেনের টিকিট আগের মতো একসঙ্গে অনলাইনে ও মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে বিক্রি করা হবে। যাত্রীদের নিরাপদ শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কোচের ধারণক্ষমতার শতকরা ৫০ শতাংশ টিকিট বিক্রি করা হবে। আন্তঃনগর ট্রেনে সব ধরনের স্ট্যান্ডিং টিকিট সম্পন্ন বন্ধ থাকবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •