• নভেম্বর ৮, ২০২০
  • শীর্ষ খবর
  • 86
সিলেটে সাহেদের বিরুদ্ধে পরোয়ানা জারি

নিউজ ডেস্কঃ করোনা ভাইরাস পরীক্ষায় প্রতারণার অভিযোগে গ্রেপ্তার হওয়া রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহেদের বিরুদ্ধে এবার চেক ডিজঅনারের ৩ মামলায় পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

রোববার (৮ নভেম্বর) দুপুরে সিলেটের বিচারিক হাকিম-১ম আদালতের বিচারক হারুনুর রশীদ তার বিরুদ্ধে পরোয়ানা জারি করেন।

এর আগে গত ৩ এপ্রিল ১০ লক্ষ টাকা করে ২ টি এবং ২০ লক্ষ টাকা ও ৫০ হাজার টাকার একটি চেক নির্ধারিত সময়ে না পাওয়ার অভিযোগে মোট ৩টি মামলা করেন সিলেটের দরবস্ত এলাকার পাথর ব্যবসায়ী শামসুল মৌলা। তার করা ৩ টি মামলাতেই সাহেদের বিরুদ্ধে পরোয়ানা জারি করেন আদালত।

শামসুল মৌলা জানান, সাহেদ আমার কাছ থেকে পাথর কিনে নিয়েছিলেন। পাথর নেওয়ার পর তিনি আমাকে চেকগুলো দিয়েছিলেন। তার নিজের স্বাক্ষর করা ৩ চেকে ২০ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা প্রদান করেন। কিন্তু ব্যাংক থেকে চেকগুলো পাস হয়নি। পরবর্তিতে আমি টাকার জন্য তার সাথে যোগাযোগ করলে তিনি আমাকে হুমকিধামকি দিতেন।

শামসুল বলেন, আমি গত ৩ এপ্রিল তার বিরুদ্ধে চেক প্রতারণা মামলা করেছি। ৩ টি মামলাতেই আজ পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত

উল্লেখ্য, করোনা সার্টিফিকেট জাল করে গ্রেপ্তার হওয়া সাহেদের বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত ৫০টির বেশি মামলা হয়েছে। অস্ত্র আইনের একটি মামলা গত ২৮ সেপ্টেম্বর তার যাবজ্জীবন কারাদন্ড প্রদান করেন আদালত।

এরআগে ব্যাপক সমালোচনার মুখে ১৫ জুলাই সাহেদকে সাতক্ষীরার সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। করোনা পরীক্ষার নামে ভুয়া রিপোর্টসহ বিভিন্ন প্রতারণার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় সাহেদকে ১০ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়। এরপর ১৯ জুলাই তাকে নিয়ে উত্তরার বাসার সামনে অভিযান চালায় ডিবি পুলিশ।

সেখানে সাহেদের নিজস্ব সাদা প্রাইভেটকারে পাঁচ বোতল বিদেশি মদ, ১০ বোতল ফেনসিডিল, একটি পিস্তল এবং একটি গুলি উদ্ধার করা হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •