• ফেব্রুয়ারি ৫, ২০২১
  • শীর্ষ খবর
  • 23
ফেঞ্চুগঞ্জে ট্রেনের তেল নিয়ে তেলেসমাতি (ভিডিওসহ)

নিউজ ডেস্কঃ সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জের মাইজগাঁও ও বিয়ালিবাজারের মাঝখানে গুতিগাঁও এলাকায় তেলবাহী একটি ট্রেনের ১০টি বগি লাইনচ্যুত হওয়ায়, সারা দেশের সঙ্গে সিলেটের রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে।

ঘটনার পর পরই বৃহস্পতিবার রাত থেকে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত স্থানীয়রা জলাশয়, পুকুর ও জমি থেকে বালতিসহ বিভিন্ন ধরণের পাত্র ভরে তেল সংগ্রহ করতে দেখা গেছে। ঘটনাস্থলের আশপাশের অনেক পুকুর-জলাশয়ে এ থেকে জ্বালানি তেল ছড়িয়ে পড়েছে। এতে অগ্নিকান্ডসহ বড় ক্ষতির আশঙ্কা করছেন তারা। তবে এক্ষেত্রে সর্তকবস্থায় রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। সেই সাথে দমকল বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত রয়েছেন। বৃহস্পতিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাত ১২টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, তেলবাহী ট্রেনের ১০টি বগি লাইনচ্যুত হয়। বগিগুলো পড়ে গেলে তেল রেল লাইনের আশপাশে ছড়িয়ে পড়ে। এ তেল সংগ্রহে ভিড় করছে মানুষ। কেউ বালতি করে কেউ গ্লাস নিয়ে তেল সংগ্রহ করেছে। দুর্ঘটনার পর পরই তেল সংগ্রহে হুমড়ি খেয়ে পড়েছে এলাকার নারী-পুরুষসহ শিশুরা। তেল সংগ্রহের জন্য বালতি নিয়ে দৌড়াদৌড়ি করতে দেখা যায়। অনেককে দেখা গেছে, ট্রেনের মধ্যে থেকেও তেল নিতে। কিছু লোককে তেল কিনতে দেখা যায়। তারা লোকজনের কাছ থেকে ২০-৩০ টাকা লিটার দরে তেল সংগ্রহ করে ড্রামে ভর্তি করে মজুদ করছে।

এদিকে, গুতিগাঁও এলাকার প্রবাসী সাজু মিয়ার বাড়ির পুকুরে তেলে ভরে গেছে বলে জানান তার চাচাতো ভাই লিয়াকত আলী। তিনি জানান, আশপাশের জমি, খাল ও পুকুরে তেলে ভরে গেছে। মানুষ যে যার মত সংগ্রহ করে নিয়েছে। ৬-৭ তেলবাহি বগি থেকে তেল পড়ে যায়।

স্বানীয়রা জানান, ট্রেনের তেল সবাই নিচ্ছে, তাই আমরাও নিলাম। এই তেল দিয়ে কি করবেন জানতে চাইলে তারা বলেন, আমাদের লোক আছে এগুলো তাদের কাছে বিক্রি করব। কতটুকু তেল নিয়েছেন জানতে চাইলে সিরাজ মিয়া বলেন, বৃহস্পতিবার টর্চ লাইটের আলো দিয়ে ১২ লিটার সংগ্রহ করেছি। আর শুক্রবার সকালে আরও ৬ লিটার। পুলিশ দৌঁড়ায় তাই বেশী সংগ্রহ করতে পারিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •