• জুলাই ১০, ২০২১
  • শীর্ষ খবর
  • 113
কানাইঘাটে নারীরা ভাঙলেন প্রতিপক্ষের ঘর, ভিডিও ভাইরাল

নিউজ ডেস্কঃ সিলেটর কানাইঘাটে মহিলারা হামলা করে ভেঙে ফেলেছেন প্রতিপক্ষের ঘর। প্রায় ঘণ্টাব্যাপী এই হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনার ভিডিও দৃশ্য এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল।

শুক্রবার (৯ জুলাই) বিকেলে কানাইঘাটের লক্ষিপাশা পূর্ব ইউনিয়নের কাড়াবাল্লা গ্রামে জায়গা-জমির বিরোধ নিয়ে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আজ শনিবার (১০ জুলাই) সকালে কানাইঘাট থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মামলা দায়েরের বিষয়টি সিলেটভিউ-কে নিশ্চিত করেছেন কানাইঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাজুল ইসলাম পিপিএম।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, কাড়াবাল্লা গ্রামের মইনুদ্দিন লুকু ও সালেহা বেগমের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে জায়গা নিয়ে বিরোধ রয়েছে। তারা এক অপরের চাচাতো ভাই-বোন। বিরোধপূর্ণ জায়গায় একটি টিনের ঘর নির্মাণ করেন মইনুদ্দিন লুকু। শুক্রবার (৯ জুলাই) বিকেলে সালেহা বেগম ও তার সন্তানেরা হামলা করে সেই টিনের ঘরটি ভেঙে ফেলেন।

ঘটনাটি স্থানীয়রা মোবাইল ফোনে ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছেড়ে দেন। এরপর থেকে এ রিপোর্ট লেখা (শনিবার বিকাল) পর্যন্ত ভিডিওটি ফেসবুক ব্যবহারকারীদের টাইমলাইন থেকে টাইমলাইনে ঘুরে বেড়াচ্ছে। বইছে আলোচনা-সমালোচনার ঝড়।

ভিডিওতে দেখা যায়, সালেহা বেগম ও তাঁর যুবতী ২ মেয়ে এবং কিশোর ছেলেরা মিলে দা এবং বাঁশ হাতে প্রতিপক্ষের টিনের ঘরে হামলা করেন। এসময় এলোপাতাড়ি কোপ ও লাঠি দিয়ে আঘাত করে টিনের ঘর ঝাঝরা করে দেন এবং ঘরের জিনিসপত্র ভাঙচুর করেন। এসময় ওই জায়গার বিভিন্ন ধরনের গাছ-পালাও কেটে ফেলেন তারা।

এ প্রসঙ্গে কানাইঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাজুল ইসলাম পিপিএম শনিবার বিকেলে বলেন, শুক্রবার শেষ বিকেলে এ ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার পরই নদী পার হয়ে আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। আজ (শনিবার) সকালে মইনুদ্দিন লুকু বাদি হয়ে সালেহা বেগমকে প্রধান আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং-১১। তদন্তসাপেক্ষে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

  • 141
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    141
    Shares