• জুলাই ১৯, ২০২১
  • মৌলভীবাজার
  • 257
শ্রীমঙ্গলে ছটফট করে যুবকের মারা যাওয়ার ঘটনায় অভিযুক্ত গ্রেপ্তার

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলায় ছুরিকাঘাতের পর ছটফট করে যুবকের মারা যাওয়ার ঘটনায় করা হত্যা মামলার মূল আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

সোমবার ভোরে শ্রীমঙ্গল রেলস্টেশন থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার ওই যুবকের নাম সজীব।

ছুরিকাঘাতের পর গত শনিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের কলেজ সড়কে প্রেসক্লাবের সামনের রাস্তায় পড়ে যন্ত্রণায় ছটফট করছিলেন শরিফ (২৭)। তাঁকে দেখতে ভিড় করেন উৎসুক লোকজন। অনেকে ভিডিও করেছেন দূর থেকে। তবে কেউ যুবককে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেননি। খবর পেয়ে পুলিশ এসে ছুরিকাহত যুবককে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পর তিনি মারা যান। নিহত শরীফ শ্রীমঙ্গলের শহরতলির শাহজিবাজার এলাকার শায়েস্তা মিয়ার ছেলে।

এ ঘটনায় নিহত শরীফের মা দেলোয়ারা বেগম বাদী হয়ে শনিবার রাতে শ্রীমঙ্গল থানায় হত্যা মামলা করেন। সেই মামলায় সজীবকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও শ্রীমঙ্গল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আল-আমিন বলেন, আজ ভোরে অভিযুক্ত সজীব ট্রেনে করে পালানোর চেষ্টা করছিলেন। এ সময় তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সজীব ও নিহত শরীফ ভালো বন্ধু ছিলেন।

পুলিশের একটি সূত্র বলছে, শরীফ ও তাঁর বন্ধু সজীব শনিবার বিকেলে শহরের একটি আবাসিক হোটেলে একটি কক্ষ ভাড়া নেন। ভাড়া নেওয়ার পর সেই কক্ষে তাঁরা কিছু সময় অবস্থান করেন। ওই দিন বেলা ৩টা ২৫ মিনিটে তাঁরা ওই হোটেলে যান। সেখানে কিছুক্ষণ অবস্থান করার পর বিকেল চারটার দিকে তাঁরা দুজন একসঙ্গে বেরিয়ে যান। শহরের একটি পেট্রলপাম্পের সামনে সন্ধ্যার দিকে দুজনকে ঝগড়া করতে দেখা গেছে। দুই বন্ধুর মধ্যে দ্বন্দ্বের জেরে এই হত্যাকাণ্ড হয়েছে বলে ধারণা করছে পুলিশ।