• আগস্ট ১৯, ২০২১
  • শীর্ষ খবর
  • 77
সুনামগঞ্জে তিন জেলে হত্যা মামলায় ছাত্রলীগ নেতা ভাইসহ কারাগারে

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের দিরাইয়ের একটি হাওরে দুই পক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে তিন জেলে নিহত হওয়ার ঘটনায় দায়ের মামলায় উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল মিয়া (৩৫) ও তাঁর ছোট ভাই তসবির মিয়াকে (২৯) কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার সুনামগঞ্জের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (দিরাই জোন) রাগীব নূর এ আদেশ দেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা (জিআরও) মো. নজরুল ইসলাম।

উজ্জ্বল ও তসবির দিরাই পৌরসভার সাবেক মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ মিয়ার ছেলে। মোশাররফ মিয়াও ওই মামলার পরোয়ানাভুক্ত আসামি। তাঁদের বাড়ি দিরাই পৌর শহরের চণ্ডীপুর এলাকায়। মোশাররফ মিয়াও ওই মামলার পরোয়ানাভুক্ত আসামি।

উজ্জ্বল মিয়া ও তসবির মিয়ার বিরুদ্ধে গত মঙ্গলবার দিরাই পৌর শহরে দৈনিক কালের কণ্ঠের উপজেলা প্রতিনিধি আবু হানিফ চৌধুরীর ওপর হামলার অভিযোগ রয়েছে। পরদিন এই ২ জনসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে দিরাই থানায় একটি মামলা করেন হানিফ। এরপরই পুলিশ তাঁদের ধরতে তৎপরতা চালায়। এ অবস্থায় আজ আদালতে দুই ভাই হাজির হয়ে হত্যা মামলায় জামিন চান। আদালতের বিচারক তাঁদের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০১৭ সালের ১৭ জানুয়ারি দিরাই উপজেলার জারলিয়া জলমহালের দখল দিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে স্থানীয় তিন জেলে নিহত হন। আহত হন আরও ২২ জন। এ ঘটনায় পরে দিরাই পৌরসভার তৎকালীন মেয়র মোশাররফ মিয়া, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ চৌধুরী, উপজেলা পরিষদের তৎকালীন চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান, উজ্জ্বল মিয়া, তাসবির মিয়াসহ ৩৮ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন উপজেলার হাতিয়া গ্রামের বাসিন্দা যুবলীগ নেতা একরার হোসেন। বর্তমানে মামলাটি তদন্ত করছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। এ মামলায় মোশাররফ মিয়া, প্রদীপ রায়, হাফিজুর রহমান, উজ্জ্বল মিয়া ও তসবির মিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা আছে।

উজ্জ্বল মিয়া মঙ্গলবার নিজেকে দিরাই উপজেলা ছাত্রলীগের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক দাবি করেছেন। কিন্তু জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আশিকুর রহমান বৃহস্পতিবার বলেছেন, দিরাইয়ে এখন ছাত্রলীগের কোনো কমিটি নেই।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •