• সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১
  • রাজনীতি
  • 44
‘পেছনের দরজা দিয়ে কিছু করার চেষ্টা করছে বিএনপি’

নিউজ ডেস্কঃ বিএনপি সব সময় পেছনের দরজা পছন্দ করে, জিয়াউর রহমান পেছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতায় এসেছেন, খালেদা জিয়াও পেছনের দরজা পছন্দ করেন। সে কারণে সাড়ে ১২ বছর ধরে আন্দোলন সংগ্রাম করে এবং দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে পেছনের দরজা দিয়ে কিছু করার চেষ্টা করে যাচ্ছে বিএনপি।

এ রাজনীতি তাদের কোনো মঙ্গল বয়ে আনবে না।

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টায় বাংলাদেশ বেতার খুলনা কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এ কথা বলেন।

পরে বেলা ১২ টায় মন্ত্রী খুলনা জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত প্রধানমন্ত্রীর সাংবাদিক কল্যাণ তহবিল হতে অনুদানের চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন।

বক্তব্যে মন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের আদেশ সরকার চাইলেই বাতিল করতে পারে, তাই বিএনপির উচিত সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞ থাকা।

তিনি বলেন, আজকে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এই এগিয়ে যাওয়া অনেকের পছন্দ হয় না। পত্রিকায় দেখলাম এই সরকারের নেতৃত্বে বিএনপি নির্বাচনে যাবে না। বিএনপি ২০১৪ সালে একবার নির্বাচন বর্জন করেছিল। কোন লাভ হয়নি, নির্বাচন হয়েছে এবং বাংলাদেশে সাংবিধানিক ধারাবাহিকতা বজায় রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ২০১৮ সালে নির্বাচনে যাবে, যাবে না, এই করতে করতে শেষ পর্যন্ত তারা নির্বাচনে গিয়েছে কাদা ঘোলা করে। এখনকার সিদ্ধান্ত তেমন কিনা জানি না। তবে আমি মনে করি বিএনপির জন্য এই নির্বাচনে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত আত্মঘাতী হবে। যারা পেছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতায় যেতে চায় তারা অবশ্য নির্বাচন বর্জন করবে।

মন্ত্রী বলেন, খুলনায় পূর্ণাঙ্গরূপে চালু হচ্ছে বাংলাদেশ টেলিভিশন। এছাড়া সকল বিভাগে চালু হবে বিটিভির কেন্দ্র। এর ফলে শিল্প সাহিত্যর বিকাশ হবে এবং নতুন নতুন প্রতিভা আত্বপ্রকাশ করবে। একই সঙ্গে কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হবে। নির্বাচনের আগেই খুলনায় বিটিভি পূর্ণাঙ্গ রূপে চালু হবে।

জিডিপি গ্রোথ প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, বিশ্বের বুকে বাংলাদেশ আজ তিন নম্বরে। যার ফল স্বরূপ প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘ থেকে জিডিপি পুরষ্কারে ভূষিত হয়েছেন। এ বছর দেশের জিডিপি বৃদ্ধি পেয়েছে ২৫০ ডলার, যা ভারতকেও ছাড়িয়ে গেছে।

খুলনা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান তালুকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশীদ। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন খুলনা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ। আরও বক্তব্য দেন ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপিত কুদ্দুস আক্তার ও খুলনা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এসএম জাহিদ হোসেন। সাংবাদিকের পক্ষ থেকে বক্তৃতা দেন অমীয় কান্তি পাল।

অনুষ্ঠানে অন্যাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমডিএ বাবুল রানা ও খুলনা প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি এসএম নজরুল ইসলাম প্রমুখ।

এ সময় ৭৫ জন সাংবাদিকের মাঝে দশ হাজার টাকার অনুদানের চেক হস্তান্তর করা হয়। এর আগে মন্ত্রী বিটিভি ও বাংলাদেশ বেতারের খুলনা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন এবং বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •