• ফেব্রুয়ারি ৮, ২০২২
  • জাতীয়
  • 286
দেশে মাথাপিছু আয় বেড়ে ২৫৯১ ডলার

নিউজ ডেস্কঃ চূড়ান্ত হিসাব অনুযায়ী ২০২০-২১ অর্থবছর শেষে দেশের জিডিপির (মোট দেশজ উৎপাদন) প্রবৃদ্ধির হার ৬ দশমিক ৯৪ শতাংশ এবং মাথাপিছু আয় দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ৫৯১ মার্কিন ডলার।

মঙ্গলবার (০৮ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভা শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান।

প্রধানমন্ত্রী এবং একনেকের চেয়ারপারসন শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সভা অনুষ্ঠিত হয়। শেরে বাংলা নগরস্থ এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত একনেক সভায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে সংযুক্ত হন তিনি।

পরিকল্পনা মন্ত্রী জানান, চূড়ান্ত তথ্য-উপাত্তের ভিত্তিতে ২০২০-২১ অর্থবছরের চূড়ান্ত হিসাব অনুযায়ী ২০২০-২১ অর্থবছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার দাঁড়িয়েছে শতকরা ৬.৯৪ ভাগ যা সাময়িক হিসাবে ছিল শতকরা ৫.৪৩ ভাগ। ২০২০-২১ অর্থবছরের চূড়ান্ত হিসাবে মাথাপিছু আয় দাঁড়িয়েছে ২১৯,৭৩৮ টাকা বা ২,৫৯১ মার্কিন ডলার যা সাময়িক হিসাবে ছিল ২১৬,৫৮৯ টাকা বা ২.৫৫৪ মার্কিন ডলার।

২০২০-২১ অর্থবছরে জিডিপির চূড়ান্ত হিসাবের উল্লেখযোগ্য বিষয়সমূহ তথ্য-উপাত্ত তুলে ধরে মন্ত্রী জানান, সার্বিক বিবেচনায় কৃষি খাতের ২০২০-২১ অর্থবছরে চূড়ান্ত হিসাবে শতকরা ৩.১৭ ভাগ প্রবৃদ্ধি প্রাক্কলন করা হয়েছে যা সাময়িক হিসাবে ছিল ২:৩৭ ভাগ। চূড়ান্ত হিসাবে ২০২০-২১ অর্থবছরে শস্য উপখাতে শতকরা ২.২৯ ভাগ, পশুপালন উপখাতে শতকরা ২.৯৪ ভাগ, বন উপখাতে শতকরা ৪.৯৪ ভাগ এবং মৎস্য খাতে শতকরা ৪.১১ ভাগ প্রবৃদ্ধি প্রাক্কলন করা হয়েছে।

শিল্প খাতে প্রবৃদ্ধির তথ্য তুলে ধরে তিনি জানান, চূড়ান্ত হিসাবে ২০২০-২১ অর্থবছরে ম্যানুফ্যাকচারিং খাতের প্রবৃদ্ধি ১১.৫৯% প্রাক্কলন করা হয়েছে। বছর শেষে বিদ্যুৎ খাতে ১১.৬৫% এবং নির্মাণ খাতে ৮.০৮% প্রবৃদ্ধি প্রাক্কলন করা হয়েছে। সার্বিকভাবে চূড়ান্ত হিসাব অনুযায়ী শিল্প খাতে ২০২০-২১ অর্থবছরে প্রবৃদ্ধি প্রাক্কলন করা হয়েছে ১০.২৯ ভাগ যা সাময়িক হিসাবে ছিল ৫.৯৯ ভাগ।

সেবা খাতের তথ্য তুলে ধরে মন্ত্রী জানান, ২০২০-২১ অর্থবছরের চূড়ান্ত হিসাবে পাইকারী ও খুচরা ব্যবসা খাতে ৭.৬৪%, যানবাহন খাতে ৪.০৪%, ব্যাংক ও বীমা খাতে ৫.৮২%, শিক্ষা খাতে ৫.৮১% ও স্বাস্থ্য খাতে ১০.৬০% প্রবৃদ্ধি প্রাক্কলন করা হয়েছে। সার্বিকভাবে চূড়ান্ত হিসাব অনুযায়ী সেবা খাতে ২০২০-২১ অর্থবছরে প্রবৃদ্ধি প্রাক্কলন করা হয়েছে ৫.৭৩ ভাগ যা সাময়িক হিসাবে ছিল ৫.৮৬ ভাগ।