• মে ২৪, ২০২২
  • লিড নিউস
  • 192
সিলেট নগরের নিচু এলাকাগুলো এখনো জলাবদ্ধ

নিউজ ডেস্কঃ সিলেট নগরের নিচু এলাকাগুলো এখনো জলাবদ্ধ অবস্থায় রয়েছে। গত শনিবার থেকে বন্যার পানি নামতে শুরু করলেও আজ মঙ্গলবার পর্যন্ত নগরের নিচু এলাকাগুলোর জলাবদ্ধতা কাটেনি। জলাবদ্ধতার সঙ্গে ময়লা পচে পানি থেকে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। বাসার ভেতরে ও সামনে পানি জমে যাওয়ায় এখনো নগরীর অনেক বাসিন্দা সিলেট সিটি করপোরেশনের আশ্রয়কেন্দ্র ও আত্মীয়স্বজনের বাড়িতে অবস্থান করছেন।

গত সপ্তাহ থেকে পাহাড়ি ঢল আর প্রবল বৃষ্টিতে সিলেটের সুরমা নদীর পানি উপচে নগরের অধিকাংশ এলাকা পানির নিচে চলে যায়। বৃষ্টি থেমে যাওয়ায় ও নতুন করে ঢলের পানি না আসায় চলতি সপ্তাহ থেকে পানি কমতে শুরু করেছে। তবুও নগরের তালতলা, মণিপুরি রাজবাড়ি, সোবহানীঘাট, যতরপুর, শাহজালাল উপশহরের বিভিন্ন ব্লকে এখনো পানি জমে আছে। তবে মূল সড়কগুলো থেকে পানি নেমে গেছে।

নগরের তালতলা এলাকার বাসিন্দা সাদিকুর রহমান বলেন, ময়লা পানি কালো হয়ে জমে আছে। বাধ্য হয়েই এ পানি মাড়িয়ে চলাচল করতে হচ্ছে। পানিতে ইট বিছিয়ে সেটি দিয়ে চলাচলের চেষ্টা করছেন। কিন্তু ইটের ওপর দিয়ে হাঁটলেও ময়লা দুর্গন্ধযুক্ত পানি পায়ে লেগে যায়। একই এলাকার বাসিন্দা রেজাউল হক বলেন, পানি নেমেছে কিন্তু এখনো সিটি করপোরেশনের পানি সরবরাহ করা হচ্ছে না। এতে প্রতিদিনকার ব্যবহারের পানি ও খাবার পানি সংগ্রহ করতে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

সিলেট সিটি করপোরেশনের প্রশাসনিক কর্মকর্তা হানিফুর রহমান বলেন, বন্যার কারণে সিটি করপোরেশনে ২৩টি আশ্রয়কেন্দ্র খোলা হয়েছিল। সেখানে গত শুক্রবার পর্যন্ত প্রায় তিন হাজার পানিবন্দী মানুষ রাত কাটিয়েছে। এখন আশ্রয়প্রার্থী মানুষের সংখ্যা কিছুটা কমেছে। আজ সকাল পর্যন্ত আশ্রয় কেন্দ্রগুলোয় ১ হাজার ৮০০ জনের মতো আশ্রয়প্রার্থী আছেন।

সিলেট পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) সূত্রে জানা যায়, আজ সকাল ছয়টা পর্যন্ত সিলেট পয়েন্টে সুরমা নদীর পানি বিপৎসীমার শূন্য দশমিক ১৫ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। নদীর কানাইঘাট পয়েন্টে পানি বিপৎসীমার ২ দশমিক ৪৩ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। কুশিয়ারা নদীর অমলশিদ পয়েন্টে পানি বিপৎসীমার শূন্য দশমিক ৫৩ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। সারি নদের সারিঘাট পয়েন্টে প্রবাহিত হচ্ছে বিপৎসীমার ২ দশমিক ৬ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে।

সিলেটের আবহাওয়া বর্তমানে অনুকূলে আছে বলে জানিয়েছেন জ্যেষ্ঠ আবহাওয়াবিদ সাঈদ আহমদ চৌধুরী। তিনি জানান, গতকাল সোমবার থেকে বৃষ্টি নেই। আজ সকাল থেকে সূর্য তাপ ছড়াচ্ছে। এ ছাড়া কাল বুধবার বৃষ্টির সম্ভাবনা কম।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •