• জুন ১৪, ২০২২
  • লিড নিউস
  • 189
আবারও গোয়াইনঘাটে বন্যার আশঙ্কা, তলিয়েছে সড়ক

নিউজ ডেস্কঃ সদ্য বন্যা কবলিত গোয়াইনঘাট এলাকায় আবারও দেখা দিয়েছে বন্যার আশঙ্কা। মঙ্গলবার ১৪ জুন ভোর থেকে সালুটিকর-গোয়াইনঘাট ও সারিঘাট-গোয়াইনঘাট সড়ক তলিয়েছে পানিতে।
গত কয়েক দিনের টানা বৃষ্টি ও থেকে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের ফলে গোয়াইনঘাটের নদনদীর পানি আবারও বৃদ্ধি পাচ্ছে। এরই মধ্যে উপজেলার কিছু নিম্মাঞ্চল প্লাবিহ হয়ে পরেছে ।

উপজেলার পূর্ব আলীরগাঁও ইউনিয়নের বাসিন্দা মনসুর আলী জানান, গত বন্যায় মানুষের অনেক ক্ষতি করে গেছে । আবারও বন্যার আশঙ্কা করা হচ্ছে। টানা বৃষ্টির কারণে রাস্তাঘাটে পানি উঠে ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে। বাড়ি থেকে বের হওয়া যাচ্ছে না।

এদিকে, নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে উপজেলার নিম্মাঞ্চল প্লাবিত হয়ে প্রায় ৪৮০ হেক্টরের মত বোনা এবং আউস নিমজ্জিত রয়েছে।

এছাড়াও সবজি নিমজ্জিত রয়েছে আরও ১৩০ হেক্টর। তবে, টানা বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকলে ফসলি জমি নিমজ্জিত হওয়ার পরিমাণ আরও বৃদ্ধি পেতে পারে বলে ধারণা করছেন অনেকেই।

গত কয়েকদিন ধরে টানা বৃষ্টি আর উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে উপজেলার নদনদীর পানি আবারও বৃদ্ধি পেতে শুরু করছে। ডাউকি, সারী ও পিয়াইন নদীর পানি আস্তে আস্তে বৃদ্ধি পাচ্ছে। যদিও এখনো নদনদীর পানি বিপৎসীমার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

টানা বৃষ্টিপাত ও ভারতের মেঘালয় থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের কারণে গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকেই গোয়াইনঘাটের ডাউকি, সারি এবং পিয়াইন নদীর পানি বৃদ্ধি পেতে থাকে। পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় উপজেলার বেশ ক’টি ইউনিয়নে আবারও পানি উঠতে শুরু করেছে।

সারী-গোয়াইন, সালুটিকর-গোয়াইন রাস্তায় পানি উঠে উপজেলা সদরের সঙ্গে যোগাযোগ ব্যবস্থায় কিছুটা ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

গোয়াইনঘাট উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. রায়হান পারভেজ রনি বলেন, টানা বর্ষণে গতকাল পর্যন্ত উপজেলায় ৪৮০ হেক্টরের মত বোনা এবং আউস নিমজ্জিত রয়েছে। এছাড়াও সবজি নিমজ্জিত রয়েছে ১৩০ হেক্টর।

এ ব্যাপারে গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. তাহমিলুর রহমান জানান, গোয়াইনঘাটে নতুন করে আবারও পানি উঠতে শুরু করেছে। নিম্মাঞ্চলের মানুষদের আগে থেকেই সতর্ক করা হচ্ছে। এছাড়াও নদীপথে চলাচল করতেও সবাইকে অনুরোধ করা হচ্ছে।