• জুন ১৬, ২০২২
  • শীর্ষ খবর
  • 29
আজমিরীগঞ্জে দুইটি বিদ্যালয় প্লাবিত, পাঠদান বিঘ্নিত

হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জ উপজেলায় কয়েকদিনের বৃষ্টি ও কুশিয়ারা নদী থেকে নেমে আসা পানিতে দুইটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্লাবিত হয়েছে। এতে বিদ্যালয়গুলোর শ্রেণিকক্ষে শিক্ষার্থীর উপস্থিতি কমে গেছে।

সম্প্রতি উপজেলার কাকাইলছেও ইউনিয়নের উত্তর রসুলপুর এবং কামালপুর চরহাঠি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চারপাশ ও আসা যাওয়ার সড়কগুলো পানিতে তলিয়ে যায়। এখন স্কুলগুলোতে নৌকা ছাড়া যাতায়াত করা যাচ্ছে না। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের জন্য হাওরে যাতায়াত ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। শ্রেণিকক্ষে শিক্ষার্থীর উপস্থিতি কমেছে প্রায় অর্ধেক।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, দুইটি বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী সংখ্যা ৪৭২ জন। প্রায় ১০ দিন ধরে বৃষ্টি ও কুশিয়ারা নদীর পানি হাওরে প্রবেশ করায় বিদ্যালয়গুলো প্লাবিত হয়। এখন অর্ধেক শিক্ষার্থী বিদ্যালয়ে নিয়মিত আসতে পারছে না।

কামালপুর চরহাটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অনুপ কুমার চক্রবর্তী। তিনি বলেন, নৌকা ছাড়া বিদ্যালয়টিতে যাতায়াত করা যাচ্ছে না। এজন্য শিশু ও প্রথম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা একদমই বিদ্যালয়ে আসছে না। সাতার জানা কিছু শিক্ষার্থী বিদ্যালয়ে এলেও তারা সংখ্যায় অনেক কম। মোট ২৫০ জনের মধ্যে অর্ধেক শিক্ষার্থী এখন অনিয়মিত।

উত্তর রসুলপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মমতা রাণী দেবী। তিনি বাংলানিউজকে বলেন, আমার বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ২২২ জন। আশপাশের এলাকা থেকে বিদ্যালয়ের ভিট অনেক নিচু। কয়েকদিনের বৃষ্টিতে তাই বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ এবং সড়ক তলিয়ে গেছে। সড়কে একটি বাঁশের সাঁকো নির্মাণ হলেও তা নিয়ে শিক্ষার্থীদের আসা-যাওয়া ঝুঁকিপূর্ণ। তাই প্রায় অর্ধেক শিক্ষার্থী বিদ্যালয়ে আসছে না।

এ বিষয়ে আজমিরীগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মাহমুদুল হক বলেন, বিষয়টি উপজেলা পরিষদের সভায় রেজুলেশন করা হয়েছে। শুকনো মৌসুমে বিদ্যালয়গুলোর সড়ক নির্মাণের জন্য সেখান থেকে অর্থ বরাদ্দ দেওয়া হবে। তবে একটি বিদ্যালয়ে চলাচলের জন্য বাঁশের সাঁকো নির্মাণ করে দেওয়া হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •