• আগস্ট ১৬, ২০২২
  • শীর্ষ খবর
  • 216
জগন্নাথপুরে সড়কে ছটফট করছিলেন, হাসপাতালে নেওয়ার পর মৃত্যু

জগন্নাথপুর প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার একটি সড়কে ছটফট করছিলেন এক ব্যক্তি। পরে তাঁকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে তিনি মারা যান। আজ মঙ্গলবার পুলিশ তাঁর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

গতকাল সোমবার রাতে উপজেলার লুদুরপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। বিষপানের পর ওই ব্যক্তি সড়কে ছটফট করছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। মারা যাওয়া ব্যক্তির নাম কমর আলী (৪৫)। তিনি উপজেলার রানীগঞ্জ ইউনিয়নের ঘোষগাঁও গ্রামের মৃত মোবারক আলীর ছেলে।

জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের দায়িত্বে থাকা চিকিৎসক মির্জা রুবেল বলেন, প্রাথমিক চিকিৎসায় মনে হয়েছে, তিনি বিষ পান করেছেন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গতকাল রাতে জগন্নাথপুর-সিলেট সড়কের লুদুরপুরে কমর আলীকে সড়কে ছটফট করতে দেখেন স্থানীয় লোকজন।

গাড়িচালকদের সহযোগিতায় পথচারীরা কমর আলীকে উদ্ধার করে জগন্নাথপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। তাঁর কাছ থেকে পাওয়া জাতীয় পরিচয়পত্রের মাধ্যমে স্বজনদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়।

কমর আলীর ভাতিজা মিজানুর রহমান বলেন, দীর্ঘদিন ধরে তাঁর চাচা বাড়িছাড়া। তিনি কোথায় থাকেন, তাঁরা কেউ জানতেন না। মাঝেমধ্যে বাড়িতে আসেন, আবার কাউকে কিছু না জানিয়ে চলে যান। তিনি দীর্ঘদিন ধরে শারীরিক ও মানসিক রোগে ভুগছিলেন। কোথায়, কীভাবে তিনি বিষ পান করলেন, তাঁরা বুঝে উঠতে পারছেন না। তিনি অবিবাহিত ও ভবঘুরে ছিলেন।

হাসপাতালে পরিদর্শনকালে সুনামগঞ্জের সহকারী পুলিশ সুপার (শান্তিগঞ্জ-জগন্নাথপুর সার্কেল) শুভাশীষ ধর বলেন, চিকিৎসকের তথ্যমতে, ধারণা করা হচ্ছে, বিষক্রিয়ায় কমর আলীর মৃত্যু হয়েছে। তিনি কীভাবে বিষ পান করলেন, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। লাশটি ময়নাতদন্তের পর পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।