• আগস্ট ২১, ২০২২
  • রাজনীতি
  • 182
দলের পক্ষে বিদেশে কিছু বলার দায়িত্ব পররাষ্ট্রমন্ত্রীর নয়: তথ্যমন্ত্রী

নিউজ ডেস্কঃ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনকে নিয়ে বিড়ম্বনায় রয়েছে আওয়ামী লীগ। দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুর রহমানের পর এবার মোমেনকে নিয়ে কথা বললেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

দলীয় সংসদ সদস্য হলেও মোমেন কেন্দ্রীয় সদস্য নয় বলে তিনি মন্তব্য করেছেন। দলের পক্ষেও বিদেশে গিয়ে তাকে কিছু বলার দায়িত্ব দেওয়া হয়নি বলেও হাছান উল্লেখ করেন।

রোববার (২১ আগস্ট) দুপুরে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সমসাময়িক বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মত বিনিময়ের সময় এসব কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী।

এ সময় মোমেন দলের কেউ নন; আব্দুর রহমানের এ মন্তব্যের ব্যাপারে তথ্যমন্ত্রীকে প্রশ্ন করেন সাংবাদিকরা। উত্তরে তিনি বলেন, উনি আওয়ামী লীগের দলীয় সংসদ সদস্য অবশ্যই; কিন্তু কেন্দ্রীয় কমিটির তো কেউ নন। সেহেতু দলের পক্ষে বিদেশে গিয়ে কিছু বলা- সে দায়িত্ব দল উনাকে দেয়নি। সেটা (আব্দুর রহমান) সঠিক বলেছেন।

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী বলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী যে বক্তব্য দিয়েছেন, পরের দিন বলেছেন ডিসটর্ট (বিকৃত) হয়েছে। দলের ভীত জনগণ। আমরা জনগণের শক্তিকে বিশ্বাস করি। আমরা মনে করি জনগণ ছাড়া কেউ সরকার টিকিয়ে রাখতে পারে না। কেউ যদি কারও সাথে ব্যক্তিগত গল্প করে আসে সে দায় আমাদের নয়। দলের পক্ষ থেকে তাকে এ দায়িত্ব দেওয়া হয়নি।

তিনিই জানেন তিনি কি বলেছেন। তিনি যদি কোথাও গিয়ে কারও সাথে আলাপ করে আসেন সেটার দায় তার। দল বা সরকারের নয়। আমি মনে করি দায়িত্বশীল পদে থাকলে দায়িত্বশীল কথা বলা দরকার। আমি নিজেও কথা বলার সময় সতর্ক থাকি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী যেহেতু ভারতে গিয়ে কথা বলেছেন; তিনি ব্যক্তি হিসেবে বলেননি; ক্যাবিনেটের সদস্য হিসেবে বলেছেন। সে দায়িত্ব ক্যাবিনেট নিচ্ছে না কেন- এমন প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, মন্ত্রীরা কোন দেশে গেলে অফিসিয়াল এবং আনঅফিসিয়ালি বিভিন্ন জনের সাথে দেখা করেন। আমরা যখন বিদেশে যাই, অফিসিয়াল পার্ট থাকে আবার আনঅফিসিয়াল বা ব্যক্তিগতভাবে অনেকের সাথে দেখা সাক্ষাৎ হয়। উনি ব্যক্তিগতভাবে কার সাথে কি বলেছেন, সেটার দায়ভার সরকার কিংবা দলের নয়।

এ ঘটনায় ভারত বিব্রত বোধ করেছে। আজকে একটি পত্রিকায় প্রতিবেদনে এসেছে, ভারত সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রীরা এটি নিয়ে মন্তব্য করেছেন। সেখানে কিছু কিছু মানুষও এটা নিয়ে কথা বলেছেন উল্লেখ করে ড. হাছান মাহমুদকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বিস্তারিত কিছু বলেননি। তবে, ওই পত্রিকাটি বিব্রত বোধ করেছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

এ সময় ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি তারেক রহমানকে ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে নেওয়া উদ্যোগের ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, যুক্তরাজ্যের সঙ্গে আলাপ চলছে। তাদের ডমেস্টিক কিছু ল আছে। সেখানে কিছু জটিলতা আছে। চুক্তি নিয়ে আলাপ আলোচনা এখনও চলছে।