• সেপ্টেম্বর ১৩, ২০২২
  • লিড নিউস
  • 166
প্রশাসনের সঙ্গে পরিবহন শ্রমিক নেতাদের বৈঠক চলছে

নিউজ ডেস্কঃ সিলেটে প্রশাসনের সঙ্গে পরিবহন শ্রমিক নেতাদের বৈঠক শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার (১৩ সেপ্টেম্বর) রাত ৮টায় সিলেট সার্কিট হাউসে এ বৈঠক শুরু হয়।

বৈঠকে উপস্থিত আছেন বিভাগীয় কমিশনার ড. মুহাম্মদ মোশাররফ হোসেন, জেলা প্রশাসক মো. মজিবর রহমান, সিলেট জেলা পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ আল মামুন, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সেক্রেটারি অধ্যাপক জাকির হোসেন ও ‘সিলেট জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক সমন্বয় পরিষদ’র নেতৃবৃন্দ।

পাঁচ দফা দাবিতে সিলেটে অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি পালন করছেন পরিবহন শ্রমিকরা। মঙ্গলবার ভোর থেকে ‘সিলেট জেলা সড়ক পরিবহন সমন্বয় পরিষদ’র ডাকে জেলায় কর্মবিরতি পালন করছেন তারা। তবে বুধবার বিভাগের ৪ জেলায়ই এ কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

পরিবহন শ্রমিকদের কর্মবিরতির ফলে কার্যতঃ অচল হয়ে পড়েছে সিলেট। মঙ্গলবার ভোর থেকেই নগরীসহ সিলেটের বিভিন্ন রাস্তায় লাঠি হাতে পরিবহন শ্রমিকরা গাড়ি চলাচলে বাঁধা দেন। দিনভর সিলেটের বিভিন্ন রাস্তায় তারা এমন ‘পিকেটিং’ করেন। এতে শিক্ষার্থী ও অফিসগামী লোকজন পড়েন বিপাকে। বাড়তি টাকা গুনে মোটরসাইকেল, রিকশা, ব্যাটারিচালিত টমটম বা রিকশায় গন্তব্যে পৌঁছেন যাত্রীরা। কর্মবিরতির ফলে মঙ্গলবার সিলেট কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল থেকে ছেড়ে যায়নি দূরপাল্লার কোনো বাস। তবে ট্রেন ছেড়ে গিয়েছে সময়মতো।

এদিকে, উদ্ভূত পরিস্থিতিতে পরিবহন শ্রমিক নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসার আহ্বান জানিয়েছে প্রশাসন। তাই রাত ৮টায় সিলেট সার্কিট হাউসে প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে তাদের বৈঠক শুরু হয়েছে।

উল্লেখ্য, পরিবহন শ্রমিকদের পাঁচ দাবি হচ্ছে- সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের (এসএমপি) কমিশনার ও উপ-কমিশনারের (ট্রাফিক) অপসারণ, ট্রাফিক পুলিশের হয়রানি ও রেকার-বাণিজ্যসহ মাত্রাতিরিক্ত জরিমানা বন্ধ, সিলেটে শ্রম আদালতের প্রতিনিধি শ্রমিক লীগের নাম ব্যবহার করে প্রভাব বিস্তারকারী নাজমুল আলম রোমেনকে প্রত্যাহার, উচ্চ আদালতের নির্দেশনার আলোকে পাথর কোয়ারি খুলে দেওয়া, ভাঙাচোরা রাস্তাগুলোর ত্রুত সংস্কার এবং নতুন সিএনজিচালিত অটোরিকশা বিক্রি বন্ধ ও বিক্রয়কৃত গাড়ির রেজিস্ট্রেশন দেওয়া।

এছাড়াও অনুমোদনহীন গাড়ি যেমন- অটোবাইক, ব্যাটারিচালিত রিকশা ও ডাম্পিংকৃত গাড়ি চলাচল বন্ধ রাখার দাবি তাদের।