• সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২২
  • শীর্ষ খবর
  • 400
সিলেটে ২ তরুণী সংঘবদ্ধ ধর্ষণে সহায়তাকারী তানিয়া গ্রেফতার

নিউজ ডেস্কঃ সিলেট নগরের একটি আবাসিক হোটেলে দুই তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণে সহায়তাকারী তানজিনা আক্তার তানিয়াকে আটক করেছে র‍্যাব।

মঙ্গলবার (১৩ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ১০টার দিকে নগরের শিবগঞ্জ এলাকার একটি বাসা থেকে তাকে আটক করা হয়।

আজ বুধবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে তাকে এসএমপির জালালাবাদ থানায় হস্তান্তর করা হলে ভুক্তভোগীদের মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়।

গ্রেফতার তানিয়া দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার জয়সিদ্দি গ্রামের দবির মিয়ার মেয়ে।

সিলেটের জালালাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজমুল হুদা খান এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, সংঘবদ্ধ মামলার প্রধান আসামি তানিয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ নিয়ে মামলায় দুজনকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

গত ২৩ আগস্ট দিনগত রাতে নগরীর পাঠানটুলাস্থ জালালাবাদ রাগীব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজ সংলগ্ন গ্রিন হিল আবাসিক হোটেলে দুই তরুণী সংঘবদ্ধ শিকার হন। ভুক্তভোগীদের বান্ধবী তানিয়া রোগীকে রক্ত দেওয়ার নাম করে তাদের ডেকে নিয়ে বখাটে কর্তৃক হোটেল কক্ষে আটকিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করান। এ ঘটনায় গত ২৮ আগস্ট ভুক্তভোগী দুই তরুণী সিলেটের জালালাবাদ থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার আসমিরা হলেন- সংঘবদ্ধ ধর্ষণে সহায়তাকারী নগরের উপশহর এলাকার বাসিন্দা বিউটি পার্লার কর্মী তানজিনা আক্তার তানিয়া (২৫),সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার নগর গ্রামের মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে মোহাইমিন রহমান রাহি (৩৩), সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলার গোবিগন্দগঞ্জ নয়াবাজার (লোকেশ্বর) গ্রামের মৃত তহুর আলীর ছেলে জুবেল (৩১), নগরের পাঠানটুলা এলাকার আলী আকবরের ছেলে রানা আহমদ শিপলু ওরফে শিবলু (৩৫), সুনামগঞ্জ সদর থানার হরিনাপাটি গ্রামের ফরহাদ রাজা চৌধুরীর ছেলে স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা নাবিল রাজা চৌধুরী (৩৫) ও সুজন (৩৫) এবং অজ্ঞাত আরও ৫/৬ জন।