• অক্টোবর ১৬, ২০২২
  • জাতীয়
  • 219
নারী যাত্রীদের নিরাপত্তায় ১০৮ বাসে সিসি ক্যামেরা

নিউজ ডেস্ক: মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ‘গণপরিবহনে নারীর নিরাপদ যাতায়াত ব্যবস্থাপনা কর্মসূচি’র আওতায় নারী যাত্রীদের নিরাপত্তায় রাজধানীর ১০৮টি বাসে সিসিটিভি ক্যামেরা বসানো হয়েছে। ক্যামেরা স্থাপনের কাজ বাস্তবায়ন করছে বেসরকারি সংস্থা দীপ্ত ফাউন্ডেশন।

রোববার (১৬ অক্টোবর) রাজধানীর গাবতলীতে সৈয়দ নজরুল ইসলাম কনভেনশন সেন্টারে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা বলেন, ‘সিসি টিভি ক্যামেরা স্থাপনের মাধ্যমে গণপরিবহন নারীবান্ধব ও নিরাপদ হবে। নারীরা বাসে উঠতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করবে। সিসি ক্যামেরা থাকায় এসব বাসের সাধারণ যাত্রীরাও সতর্ক থাকবে এবং তাদের মাঝে সচেতনতা তৈরি হবে। হয়রানি বা নির্যাতনের ঘটনা ঘটলে সিসিটিভি ফুটেজ আদালতে আলামত ও প্রামাণিক হিসেবে ব্যবহৃত হবে।’ নারীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পর্যায়ক্রমে সব বাসে সিসি টিভি ক্যামেরা স্থাপন করা হবে বলে জানান প্রতিমন্ত্রী।

উদ্বোধনের দিন চারটি বাস কোম্পানির ২৫টি ও একটি কোম্পানির ৮ টিসহ মোট ১০৮টি বাসে সিসি ক্যামেরা সচল করা হয়। এর মধ্যে রাজধানী সুপার সার্ভিস লিমিটেডের ঢাকা টু ডেমরা স্টাফ কোয়ার্টার রুট, বসুমতি ট্রান্সপোর্টের গাবতলী টু গাজীপুর রুট, প্রজাপতি পরিবহন লিমিটেডের মোহাম্মদপুর টু আবদুল্লাহপুর রুট, এবং পরিস্থান পরিবহনের ঘাটারচর টু আব্দুল্লাহপুর রুটের পঁচিশটি করে বাস এবং গাবতলী এক্সপ্রেসের গাবতলী টু সায়েদাবাদ রুটের আটটি বাসে প্রাথমিক পর্যায়ে সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব হাসানুজ্জামান কল্লোল। বাস মালিক সমিতির উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘চালকদের
নিয়োগদানের আগে তাঁদের সম্পর্কে নিশ্চিত হতে হবে যেন তাঁরা অপরাধ করলে দ্রুত শনাক্ত করা যায়। যাত্রীদের সঙ্গে গাড়ির চালক ও স্টাফদের আচরণ কেমন হবে, সে ব্যাপারে প্রশিক্ষণ দিতে হবে।’

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আগা খান মিন্টু। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন—মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা, বাস মালিক সমিতির নেতা, বাসচালক, স্টাফ, হেলপার যাত্রীসহ পরিবহন সংশ্লিষ্টরা।

সিসি ক্যামেরা স্থাপন ও রক্ষণাবেক্ষণ কাজে প্রথম তিন বছরে ২ কোটি ৬৬ লাখ টাকা ব্যয় হবে বলে জানিয়েছে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় জানিয়েছে।