• ডিসেম্বর ১৬, ২০২২
  • জাতীয়
  • 253
সীমান্তের নিরাপত্তায় বাড়ানো হয়েছে আকাশপথের সক্ষমতা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিউজ ডেস্কঃ সীমান্ত এলাকায় বিচ্ছিন্নতাবাদী ও জঙ্গি তৎপরতা রোধে টহল কার্যক্রম বাড়াতে আকাশপথে সক্ষমতা বাড়ানো হয়েছে। সীমান্তে টহল কার্যক্রমের অংশ হিসেবে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশকে (বিজিবি) দুটি হেলিকপ্টার দেওয়া হয়েছে। পুলিশের জন্য আসছে দুটি হেলিকপ্টার।

শুক্রবার (১৬ ডিসেম্বর) সকালে রাজারবাগ স্মৃতিসৌধে মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদ বীর পুলিশ সদস্যদের প্রতি ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে এসব তথ্য জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

তিনি বলেন, সীমান্ত এলাকায় কতগুলো বর্ডার লাইন আছে যা অত্যন্ত দুর্গম। পায়ে হাঁটা ছাড়া সেখানে যাওয়ার উপায় নেই। তারপরও প্রধানমন্ত্রী বিজিবিকে দুটি হেলিকপ্টার দিয়েছেন এবং পুলিশের জন্যও দুটি হেলিকপ্টার আসছে। বিজিবির হেলিকপ্টার দিয়ে সীমান্ত রক্ষা করে চলেছি।

ফারদিন ইস্যুতে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, তার মৃত্যুর ঘটনায় র‍্যাব-ডিবি সুন্দর করে বিশ্লেষণ করেছে। তাদের ওপর আস্থা রাখুন।

জঙ্গিবাদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সারা বিশ্বেই জঙ্গিদের উত্থান ঘটানোর চেষ্টা হয়েছিল। জঙ্গি একটি বৈশ্বিক সমস্যা। প্রধানমন্ত্রীর দৃঢ়তার জন্য জঙ্গিরা শাখা-প্রশাখা বিস্তার করতে পারেনি বাংলাদেশে। জঙ্গিবাদকে একদম সমূলে উৎপাটন না করলেও আমরা নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসছি। আমরা মনে করি ধর্মের সঠিক ব্যাখ্যা আমাদের ছেলেরা পাচ্ছে তখনই এই জায়গা থেকে ফিরে আসছে।

যুদ্ধ শিশু সম্পর্কে প্রশ্ন করা হলে মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যুদ্ধ শিশু ও তাদের মায়েদের জন্য একটি ট্রাস্ট করে গিয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধু তখন শিশুদের বলেছিলেন, তোমরা সবাই আমার ছেলে-মেয়ে। বঙ্গবন্ধু তাদেরকে আপন করে নিয়েছিলেন।

এ সময় দেশবাসীকে বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা জানান আসাদুজ্জামান খান কামাল।

এর আগে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে রাজারবাগ শহীদ পুলিশ স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। পরে পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুনসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদ বীর পুলিশ সদস্যদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

পুলিশ কর্মকর্তাদের মধ্যে রাজারবাগ শহীদ স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানান ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক, র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) মহাপরিচালক এম খুরশীদ হোসেন, বাংলাদেশ পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও এসবি’র প্রধান অতিরিক্ত আইজিপি মো. মনিরুল ইসলাম এবং সাধারণ সম্পাদক ও পুলিশ সুপার ঢাকা জেলা মো. আসাদুজ্জামান, পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতির (পুনাক) সভানেত্রী ডা. তৈয়বা মুসাররাত চৌধুরী প্রমুখ।