• মার্চ ২১, ২০২৩
  • খেলাধুলা
  • 125
মোস্তাফিজ রাতারগুলে, সাকিব ঢাকায়

ক্রীড়া ডেস্কঃ মাঝে এক দিনের ব্যবধানে দুটি ওয়ানডে খেলা বাংলাদেশ দলের জন্য আজকের দিনটা ছিল বিশ্রামের। গতকালই জানিয়ে দেওয়া হয়েছে কেউ আজ মাঠে যাবেন না। এমন দিনে ক্রিকেটাররা সাধারণত বাইরে ঘুরতে যান। আর সিলেট এলে সাদা পাথরে তো ঘুরতে যেতেই হবে। সিলেটে থেকেও বৃষ্টির দিনে ভোলাগঞ্জের এই দর্শনীয় স্থান ঘুরতে না যাওয়া বোকামি।

সকাল থেকেই হাসান মাহমুদ এ নিয়ে ব্যস্ত। কিন্তু দলের আর কোনো ক্রিকেটার হাসানের সঙ্গে গেলেন না। কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে ও ম্যানেজার নাফিস ইকবালসহ সাপোর্ট স্টাফের কয়েকজন সদস্যের সঙ্গে মাহমুদ গেছেন সাদা পাথর ভ্রমণে। ওদিকে মোস্তাফিজুর রহমান তাঁর স্ত্রীকে নিয়ে বের হয়েছেন চা-বাগান ও রাতারগুল ঘুরতে।

সিলেটেরই ঘরের ছেলে নাসুম আহমেদ আগের রাতে হোটেল ছেড়ে বাড়িতে চলে যান। আজ দুপুর পর্যন্ত পরিবারকে সময় দিয়ে টিম হোটেলে ফিরে নাসুমের জিম করার কথা। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের শুভেচ্ছাদূত হওয়ার অনুষ্ঠানে যোগ দিতে ঢাকায় গেছেন সাকিব আল হাসান।

অনুষ্ঠানে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে গতকালের দ্বিতীয় ওয়ানডে নিয়েও কথা বলেছেন তিনি। বলেছেন, বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়া ম্যাচটা জিততে না পারার আফসোসের কথাও, ‘জিতে গেলে অবশ্যই ভালো হতো, বিশেষ করে যারা ভালো খেলছে তাদের জন্য। মুশফিক ভাইর জন্য আরও ভালো হতো আমার মনে হয়। কিন্তু বৃষ্টি তো আমাদের হাতে নেই, এটা হতেই পারে।

তৃতীয় ওয়ানডের দল থেকে বাদ পড়া আফিফ হোসেনও ফিরে গেছেন ঢাকায়। আবাহনীর হয়ে মোহামেডানের বিপক্ষে আগামীকাল শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচ খেলবেন তিনি।

তৃতীয় ওয়ানডের স্কোয়াডে না থাকলেও এখন পর্যন্ত দলের সঙ্গেই আছেন শরীফুল ইসলাম। তবে তাঁরও ঢাকায় ফেরার কথা। প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচ খেলে আফিফ ও শরীফুলের চট্টগ্রামে টি-টোয়েন্টি দলের সঙ্গে যোগ দেওয়ার কথা। দলের বাকি ক্রিকেটারদের দিনটা টিম হোটেলেই বিশ্রাম নিয়ে কাটানোর কথা।

প্রতিপক্ষ আয়ারল্যান্ড দল অবশ্য ঐচ্ছিক অনুশীলনে এসেছে। গতকাল বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত দ্বিতীয় ওয়ানডেতে একাদশের বাইরে থাকা ক্রিকেটাররা আজ সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে অনুশীলন করেন। অনুশীলন শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন আয়ারল্যান্ডের সহকারী কোচ গ্যারি উইলসন।

সিরিজজুড়ে দাপুটে ক্রিকেট খেলা বাংলাদেশের প্রসঙ্গই ঘুরেফিরে এসেছে আইরিশ সহকারীর কথায়। যদিও উইলসন বাংলাদেশ নিয়ে কোনো কথা বলতে চাননি, ‘সত্যি বলতে, আমি বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের নিয়ে কথা বলতে চাই না। আমি আয়ারল্যান্ডের কোচ।’ কিন্তু এরপরই দ্বিতীয় ম্যাচে ৬০ বলে ১০০ রানের বিস্ফোরক ইনিংস খেলা মুশফিকুর রহিমের প্রসঙ্গ টানলেন, ‘মুশফিক খুব ভালো ক্রিকেটার।

বাংলাদেশে অনেক ভালো ক্রিকেটারই আছে। কিন্তু আমরা নজর দিচ্ছি কীভাবে নিজেদের উন্নতি করতে পারি। বাংলাদেশের বিপক্ষে ভালো করতে পারি। তবে মুশফিক অনেক ভালো ক্রিকেটার।’

সিরিজ শুরুর আগে আইরিশদের কণ্ঠে ছিল বাংলাদেশ দলের স্পিন-ভীতি। কিন্তু প্রথম ম্যাচে আইরিশদের অলআউট করার পেছনে পেসারদের ভূমিকাও ছিল স্পষ্ট। তাই উইলসনের মুখেও শোনা গেল বাংলাদেশের পেসারদের প্রশংসা, ‘আমরা জানতাম তাসকিন গত কয়েক বছরে অনেক উন্নতি করেছে। সে দারুণ খেলছে। মোস্তাফিজেরও দারুণ রেকর্ড আছে। আমরা জানতাম, শুধু স্পিনারদেরই সামলাতে হবে না। এটা আমাদের জন্য চমক নয় যে পেসাররাও একটা বড় ভূমিকা রাখবে।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •