• এপ্রিল ৩০, ২০২৩
  • মৌলভীবাজার
  • 233
মৌলভীবাজারে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষ, ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে জখম

মৌলভীবাজার প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার ভূনবীর ইউনিয়নের ভূনবীর চৌমুহনায় অবৈধ বালু উত্তোলন ও বিক্রির আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বালু ব্যবসায়ী জলিল মাহমুদ গং ও ফেরদৌস আহমেদ গংয়ের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এ ঘটনায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার (২৯ এপ্রিল) সন্ধ্যার দিকে অবৈধ বালু ব্যবসাকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এসময় উপজেলার আলীসারকুল গ্রামের বালু ব্যবসায়ী জলিল মাহমুদের ভাইপো ও মৃত জয়নাল মেম্বারের ছেলে জাহিদুল ইসলাম রনি দা দিয়ে আঘাত করলে আরেক ব্যবসায়ী ফেরদৌস আহমেদের ভাই বুলবুল আহমদের হাতে কোপ লাগে। তার হাতের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

ফেরদৌস আহমেদ বলেন, পূর্বপরিকল্পিতভাবে জলীল মাহমুদ গং আমাদের ওপর হামলা চালিয়েছে।

আহত অবস্থা ভাইকে শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে চিকিৎসক তাকে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা সদর হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলেন। পরে তার হাতের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজে রেফার্ড করেন সেখানকার চিকিৎসক।

জানা যায়, শনিবার (২৯ এপ্রিল) শ্রীমঙ্গল সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সন্দীপ তালুকদার ভূনবীর ইউপির ভীমসী ও জৈতা ছড়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। এ সময় কাউকে ঘটনাস্থলে না পেয়ে তিনি বালু উত্তোলনের সরঞ্জামাদি জব্দ ও ধ্বংস করেন।

শ্রীমঙ্গল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার জানান, ঘটনার পর পরই তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে এবং ঘটনার সঙ্গে অভিযুক্তদের গ্রেফতার করার অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এখনও কেউ থানায় মামলা দেননি। মামলা দিলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।