• জুন ২০, ২০২৩
  • শীর্ষ খবর
  • 96
সিসিক নির্বাচন: এজেন্টদের বাড়িতে গিয়ে হুমকির অভিযোগ জাপার মেয়র প্রার্থীর

নিউজ ডেস্ক: সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে জাতীয় পার্টির মেয়র প্রার্থী নজরুল ইসলাম বাবুল বলেছেন, ‘‘প্রাকৃতিক দুর্যোগ থাকবে, এখন বৃষ্টির দিন। কিছু করার নেই। কিন্তু আমাদের মনে অন্য শঙ্কা। আমার প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকার প্রার্থী যে অবস্থা শুরু করেছেন, তাতে আমি শঙ্কিত। উনি প্রথম দিন থেকে নির্বাচনের আচরণবিধি লঙ্ঘন করে চলেছেন।

‘‘উনার একটা বিশাল বাহিনী আছে। শতশত বহিরাগত লোকদের এনেছেন। তারা ভোটের দিন প্রভাব বিস্তার করবে। তাছাড়া প্রশাসন পক্ষপাতিত্ব করছে, নির্বাচন কমিশন পক্ষপাতিত্ব করছে। সেই বিষয়টি যদি লক্ষ্য করি তাহলে বুঝতে পারছি তারা ভোটে নয়, জোর করে মেয়র পদ নিয়ে যাবে।’’

‘‘উনারা ভালো করে জানেন যে, ভোটের মাধ্যমে গেলে তারা হারবেন। এটাই তাদের ভয়। এজন্য তারা প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছেন। কিছু তারা করবে ইভিএম দিয়ে ও প্রশাসন দিয়ে।’’

মঙ্গলবার (২০ জুন) দুপুরে নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে জাতীয় পার্টির প্রার্থী নজরুল ইসলাম বাবুল এই কথাগুলো বলেন।

বাবুল বলেন, ‘‘আমার এজেন্টদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হুমকি দিচ্ছে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।’’

নজরুল ইসলাম বাবুল বলেন, ‘‘আমি মহানগরের জনগনের উদ্দেশ্যে বলতে চাই, আপনারা সতর্ক থাকবেন। যেন আপনাদের আমানত তারা চুরি করতে না পারে। আপনাদেরকে তো দায়িত্ব নিতে হবে। উনারা তো সাফাই গাচ্ছেন, ইভিএমে কিছু হবে না। কারচুপি তো উনারাই করাবেন।

‘‘তাছাড়া ইভিএমএ শঙ্কা তো সবারই আছে। এটা চুরির মেশিন, এটা চুরির একটা যন্ত্র। উনারা প্ল্যান অনুযায়ী সব ব্যবস্থা করছেন।’’

সুষ্ঠু ভোট নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করে বাবুল আরও বলেন, ‘দুটো পত্রিকায় দেখলাম উনারা ফরমায়েশি ভোট জরিপের ফলাফল দিয়ে রেখেছেন। কত ভোটে পাশ করবেন সংখ্যাটাও পর্যন্ত উল্লেখ হয়েছে। তাহলে কি দাঁড়ালো? তারা জনগণকে তোয়াক্কা করতেছে না। আগাম নীলনকশা করে রেখেছে। কোন প্ল্যানে, কিভাবে আগাবে।’’

তিনি আওয়ামী লীগের প্রার্থীর উদ্দেশ্যে বলেন, ‘‘কারচুপির একটা সীমা আছে। সিলেটের মাটিতে এটা করতে যাবেন না। তাহলে আপনাদের সমস্যা হবে। জনপ্রতিয়তা থাকলে ভোটের মাঠে কারচুুপি ছাড়া আসেন। দেখেন আপনাদের জনপ্রিয়তা কতটুকু আছে।’’

‘‘মাঠ ঘুরেছি, মানুষের সাথে কথা বলেছি। সিলেটের মানুষ নৌকাকে প্রত্যাখান করেছে। লাঙ্গল ছাড়া কোনো জনগণ ভোট দেবেই না, ‘‘যোগ করেন বাবুল’’।