• জুন ২৩, ২০২৩
  • লিড নিউস
  • 203
পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা আমার প্রথম চ্যালেঞ্জ: আনোয়ারুজ্জামান

নিউজ ডেস্কঃ নগরীর পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা আমার প্রথম চ্যালেঞ্জ বলে জানিয়েছেন সিলেট সিটি করপোরেশনের নব নির্বাচিত মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী।

তিনি বলেন, ‘একটু বৃষ্টি হলেই সিলেট শহর পানিতে ডুবে যায়, বাড়িঘরে পানি ঢুকে যায়।

আমার লক্ষ্য নগরীর পানি নিষ্কাশন। বিষয়টি নিয়ে যারা কাজ করেন, তাদের সঙ্গে কথা বলে মাস্টার প্ল্যান করে এ সমস্যার সমাধান করা হবে। এটাই প্রথম চ্যালেঞ্জ। ’

বৃহস্পতিবার (২২ জুন) সন্ধ্যা ৬টায় সিলেট জেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

আনোয়ারুজ্জামান বলেন, একজন ক্ষুদ্র কর্মী হিসেবে নগরবাসীর স্বতঃস্ফূর্তভাবে আমাকে ভোট দিয়ে মেয়র নির্বাচিত করেছেন, এর থেকে বড় পাওয়া আর হতে পারে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে মনোনীত করেছেন বলেই দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা আমার জন্য কাজ করেছেন। আমি তাদের কাছে কৃতজ্ঞ। সাধারণ ভোটার থেকে শুরু করে সব শ্রেণি-পেশার মানুষ আমাকে ভোট দিয়েছেন, আমাকে সহযোগিতা করেছেন। ক্লিন, গ্রিন ও স্মার্ট সিলেট নির্মাণে আমি যে প্রতিজ্ঞা করেছি, মানুষ সেটা বিশ্বাস করেছেন, এ কারণেই আমাকে ভোট দিয়েছেন।

তিনি বলেন, শঙ্কা ছিল মানুষ আমাকে ভোট দেবে কিনা? আমি আজকে অত্যন্ত আনন্দিত যে, মানুষ আমাকে ভোট দিয়েছেন। এ মুহূর্তে মন ভালো না, কারণ মানুষকে আমি যে কমিটমেন্ট করেছি, এ কমিটমেন্ট আমি বাস্তবায়ন করতে পারব, কি পারব না এটা নিয়েই আমি দুশ্চিন্তায় আছি।

মেয়র আনোয়ারুজ্জামান বলেন, আমি প্রথমে এ শহরকে ক্লিন করতে চাই। আগে শহরটা সুন্দর হোক, তারপর রাস্তাঘাটসহ অন্যান্য উন্নয়ন বিবেচনায় নেবো। আমার প্রতিজ্ঞা অন রেকর্ড বলেছি, এক বছর পরে যখন আমাকে জিজ্ঞাসা করা হবে যে, আমি আমার প্রতিজ্ঞা কতটুকু রাখতে পারলাম, এটা নিয়েই আমি শঙ্কিত।

তিনি বলেন, সরকারের উন্নয়নের কাজ বন্ধ হয় নাই, বরঞ্চ সরকার কৃচ্ছ্র সাধনের জন্য বলছে। যার অর্থ হচ্ছে অপচয় বন্ধ করা। সরকারি কর্মকর্তারা প্রশিক্ষণের নামে অপ্রয়োজনে বিদেশ ভ্রমণ করবেন, এ ধরনের বিষয়গুলো না করার জন্যই প্রধানমন্ত্রী বলেছেন।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য, সাবেক মন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দা জেবুন্নেছা হক, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শফিকুর রহমান চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন খান, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেনসহ সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতারা।