• জুলাই ১১, ২০২৩
  • শীর্ষ খবর
  • 224
সুনামগঞ্জে হত্যা মামলায় যুবকের আমৃত্যু কারাদণ্ড

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জে সামছুল হক (২৮) নামে এক যুবককে হত্যার দায়ে সাহাব উদ্দিন এক আসামিকে যাবজ্জীবন (আমৃত্যু) কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। একই সাথে ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়েছে।

সোমবার (১০ জুলাই) সকাল সাড়ে ১১টায় সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ (১ম আদালত) মহিউদ্দিন মুরাদ এ রায় দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত সাহাব উদ্দিন সদর উপজেলার জাহাঙ্গীরনগর ইউনিয়নের নুরুজপুর গ্রামের বাচ্চু মিয়ার ছেলে।

পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট সোহেল আহমদ ছইল মিয়া রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, রায় ঘোষণার সময় আসামি সাহাব উদ্দিন আদালতের এজলাসে উপস্থিত ছিলেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০২১ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে সিলেটে বসবাসরত বড় বোন নাছিমা বেগমের বাসায় বেড়াতে যান ভিকটিম সামছুল হক। পরদিন স্ত্রী সন্তানদের বোনের বাসায় রেখে তিনি বাড়িতে চলে আসেন। এরপর সামছুল হকের সাথে বড় বোন যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তার ব্যবহৃত দুটি মোবাইলের সংযোগ বন্ধ পান। বিষয়টি জানাজানি হলে আত্মীয়-স্বজনরা বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুজি করেও সামছুল হকের সন্ধান পাননি।

নিখোঁজের ৬ দিন পর (৫ অক্টোবর) ইসলামপুর গ্রামের রাবিয়া বেগম ও শাকিল মিয়া গরুর ঘাস কাটতে পার্শ্ববর্তী জমিতে গেলে খাড়েরগাঁও গ্রামের আব্দুল কাদিরের ধানি জমির আইল দিয়ে পঁচা দুর্গন্ধ পান। পরে জমিতে মাথা ও এক পা বিচ্ছিন্ন অবস্থায় একটি মরদেহ দেখতে পান তারা।

পরে স্থানীয় লোকজনসহ নিহতের পিতা গিয়াস উদ্দিন ঘটনাস্থলে গিয়ে পরনে থাকা হলুদ ও সবুজ রঙের লুঙ্গিসহ সাদা স্যান্ডো গেঞ্জি দেখে ছেলে সামছুল হকের মরদেহ শনাক্ত করেন।

এ ঘটনায় নিহতের বোন বাদী হয়ে ৭ অক্টোবর অজ্ঞাতনামা আসামিদের বিরুদ্ধে সুনামগঞ্জ সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। এরপর পুলিশ তদন্ত শেষে সাহাব উদ্দিনকে একমাত্র আসামি করে ২০২২ সালের ২৭ জুন আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। বিচার প্রক্রিয়া শেষে সোমবার রায় দেন আদালত।