• জুলাই ১৫, ২০২৩
  • মৌলভীবাজার
  • 286
মৌলভীবাজারে বিয়ে বাড়ির আনন্দ মুহূর্তে বিষাদে পরিণত!

মৌলভীবাজার প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে মামার বিয়ের দাওয়াত খেতে এসে পুকুরের পানিতে ডুবে রুহান আহমদ (৫) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। তার মৃত্যুতে বিয়ের আনন্দ মুহূর্তেই বিষাদে পরিণত হয়েছে।

শুক্রবার (১৩ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৪টায় শ্রীমঙ্গল উপজেলার সাতগাঁও ইউনিয়নের গোপালপুর গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

শ্রীমঙ্গল ইউনিয়নের পূর্ব শ্রীমঙ্গলের বাসিন্দা নিহত শিশুর নানা ইব্রাহিম মিয়া (৫৫) জানান, আমার ছেলে ইমদাদুল হক সাদেক ওমানে থাকে। বিদেশ থেকে ভিডিও কলে ছেলের বিয়ের অনুষ্ঠান ছিল আজ। বিয়ের দাওয়াত খেতে আমার মেয়ে তার জামাই ও তাদের একমাত্র পুত্র রুহানকে নিয়ে আমার বাড়িতে আসে। দুপুরে আমরা একসঙ্গে বিয়ে বাড়িতে যাই। বিয়ে বাড়িতে হঠাৎ করে আমার নাতি নিখোঁজ। আমরা তাকে দেখতে না পেয়ে বাড়ির চারপাশ ও পুকুরে খোঁজাখুঁজি শুরু করি।

পরে কেউ একজন পুকুরে তাকে দেখতে পেয়ে খবর দিলে সেখান থেকে উদ্ধার করে প্রথমে শ্রীমঙ্গলস্থ সাধন ঘোষের মুক্তি মেডিকেয়ার ক্লিনিকে নিয়ে যাই। সেখানে ডাক্তার না থাকার শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ইব্রাহিম মিয়া আরও জানান, আমার মেয়ের শ্বশুর বাড়ি মৌলভীবাজার পৌরসভার বড়হাট এলাকায়। নিহত শিশুর পিতার নাম জহিরুল হক রাসেল। তিনি ডাচবাংলা ব্যাংকের বিশ্বনাথ সিলেট ব্রাঞ্চে চাকরি করেন।

শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. শারমিন আক্তার জানান, শুক্রবার বিকেলে ৫ বছর বয়সী এক শিশুকে হাসপাতালে আনা হয়েছিল। তবে হাসপাতালে আসার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।