• আগস্ট ২২, ২০২৩
  • রাজনীতি
  • 245
রওশন এরশাদ নিজেকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ঘোষণা করলেন

নিউজ ডেস্কঃ এবার রওশন এরশাদ নিজেকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হিসেবে ঘোষণা করেছেন। এই ঘোষণা–সম্পর্কিত তাঁর সই করা এক বিজ্ঞপ্তি আজ মঙ্গলবার দুপুরে গণমাধ্যমে পাঠানো হয়েছে। কিন্তু এ ব্যাপারে জানেন না দলটির অন্য নেতারা।

দলটির চেয়ারম্যান জি এম কাদের যখন ভারত সফরে রয়েছেন, সে সময় রওশন এরশাদ নিজেকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ঘোষণা করায় দলে ভাঙনের আশঙ্কা করছেন দলের নেতারা। যদিও জাতীয় পার্টির মহাসচিবসহ নেতাদের অনেকে বলেছেন, তাঁরা রওশন এরশাদের এ ঘোষণার ব্যাপারে কিছুই জানেন না। দলের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে এই দুই শীর্ষ নেতার বিরোধ চলছে অনেক দিন ধরেই।

আজ গণমাধ্যমে পাঠানো রওশন এরশাদের সই করা বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘আমি বেগম রওশন এরশাদ, এমপি জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা কো–চেয়ারম্যান এই মর্মে ঘোষণা করছি যে পার্টির সিনিয়র নেতাদের পরামর্শে ও সিদ্ধান্তক্রমে দলের গতিশীলতা বজায় রাখার স্বার্থে দলের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব গ্রহণ করলাম।’ এই বিজ্ঞপ্তিতে তিনি দলের প্রতিষ্ঠাতা কো–চেয়ারম্যান ও সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা হিসেবে সই করেছেন।

তবে এই সংবাদ বিজ্ঞপ্তির ব্যাপারে জানার জন্য রওশন এরশাদ এবং তাঁর পক্ষের নেতাদের মধ্যে গোলাম মসীহ এর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

যদিও রওশন এরশাদ লিখেছেন, পার্টির নেতাদের পরামর্শে ও সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে তিনি চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নিয়েছেন। কিন্তু জাতীয় পার্টির মহাসচিব মো. মুজিবুল হক (চুন্নু) বলেন, ‘এ বিষয়ে আমি কিছুই জানি না। আর এভাবে পার্টির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নেওয়ার কোনো সুযোগ নেই।

নির্বাচন যত এগিয়ে আসছে, জাতীয় পার্টিতে দুই শীর্ষ নেতার বিরোধ তত বাড়ছে। আওয়ামী লীগ সরকারের সঙ্গে রওশন এরশাদের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক নিয়ে জাতীয় পার্টির ভেতরে নানা আলোচনা রয়েছে। আর জি এম কাদের বেশ কিছুদিন ধরে সরকারের সমালোচনা করে বক্তব্য দিয়ে আসছেন।

জি এম কাদের ভারত সফরে যান ২০ আগস্ট। এর আগের দিন ১৯ আগস্ট রওশন এরশাদ গণভবনে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক করেছেন। সেই বৈঠকের পর রওশন এরশাদ বর্তমান সরকারের অধীনে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার ঘোষণা দেন। এর তিন দিনের মাথায় রওশন এরশাদ জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নেওয়ার ঘোষণা দিলেন।

এদিকে ভারত সফর শেষে কাল বুধবার জি এম কাদেরের দেশে ফেরার কথা রয়েছে।
জাতীয় পার্টির কো–চেয়ারম্যান কাজী ফিরোজ রশিদ প্রথম আলোকে বলেন, তাঁদের দলে বিভক্তি আনার জন্য কোনো মহল এ ধরনের তৎপরতা চালাচ্ছে।

দলটিতে এখন ভাঙনের আশঙ্কা করছেন জাতীয় পার্টির নেতাদের অনেকে।