• সেপ্টেম্বর ৫, ২০২৩
  • মৌলভীবাজার
  • 247
হাতির আক্রমনে পরিচালক নিহত

মৌলভীবাজার প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারের জুড়ীতে পোষা হাতির আক্রমণে এক পরিচালকের মৃত্যু হয়েছে। নিহত মাহুতের নাম গোলাম মোস্তফা (৪৫)। তার বাড়ী জয়পুরহাট। ঘটনাটি সোমবার (০৪ আগস্ট) সন্ধ্যার দিকে উপজেলার সাগরনাল ইউনিয়নের সাগরনাল বাঁশমহালের গহীনে ঘটেছে।

পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণের প্রস্তুতি নিচ্ছে।

জানা যায়, জুড়ী ও কুলাউড়া উপজেলা জুড়ে বিস্তৃত হারারগজ পাহাড়ে জুড়ী ও কুলাউড়ার ব্যক্তি মালিকানাধীন বেশ কিছু হাতি এই পাহাড়ে বিচরণ করে। কুলাউড়া উপজেলার কর্মধা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান এম এ রহমান আতিকের মালিকানাধীন কয়েকটি হাতি এখানে রয়েছে। তারই একটি হাতি গত সপ্তাহ ধরে উন্মাদ হয়ে পাহাড়ে ঘুরছে। বস্তি এলাকায় নেমে এসে মানুষের ক্ষেতের ফসল ও বাড়ীঘরের ক্ষতি সাধন করছে। এমন খবর পেয়ে হাতির মালিক হাতিটিকে নিয়ন্তদ্রণের জন্য গোলাম মোস্তফাসহ পাঁচ-ছয়জন মাহুত সেখানে পাঠান। মাহুতের দলটি সোমবার বিকেলে পাহাড়ের ভিতরে প্রবেশ করে উন্মাদ হাতিটিকে নিয়ন্ত্রণে আনার নানা কৌশল অবলম্বন করতে থাকেন। এ সময় হাতিটি মাহুত গোলাম মোস্তফাকে আঘাত করলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু ঘটে।

খবর পেয়ে জুড়ী থানার পুলিশ স্থানীয়দের সহযোগিতায় লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

হাতির মালিক ও কুলাউড়ার কর্মধা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান এম এ রহমান আতিক বলেন, ‘গোলাম মোস্তফা ৮/১০ বছর থেকে আমার হাতির মাহুত হিসেবে কাজ করছেন। সোমবার হাতি আনতে গিয়ে অনাকাঙিক্ষত দুর্ঘটনায় হাতির আক্রমণে তিনি মারা যান।

জুড়ী থানার ওসি (তদন্ত) হুমায়ুন কবির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, লাশ সুরতহাল করে থানায় রাখা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার মর্গে পাঠানো হবে।

উল্লেখ্য, ৭ মে জুড়ী উপজেলার ফুলতলা ইউনিয়নের চুঙ্গাবাড়ী বাঁশ মহাল এলাকায় উক্ত মালিকের একটি হাতি একই ভাবে উন্মাদ হয়ে যায়। হাতিটি নিয়ন্ত্রনে আনতে গিয়ে সেদিন সন্ধ্যা ৬টায় হাতির আক্রমনে বাবুল মিয়া (৪০) নামে হাতির মাহুত মারা যান।