• সেপ্টেম্বর ৯, ২০২৩
  • শীর্ষ খবর
  • 221
আজমিরীগঞ্জে আসামীপক্ষের হামলায় আট পুলিশ আহত

হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জে গভীর রাতে আসামী ধরতে গিয়ে আসামীপক্ষের লোকজনের ধাওয়া ও পিটুনিতে আট পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন৷

শুক্রবার (৮ সেপ্টেম্বর) ভোর রাতে উপজেলার শিবপাশা ইউনিয়নের পশ্চিমভাগ গ্রামের মোড়লদীঘিতে এই ঘঠনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয়সুত্রে জানা যায়, ৭ সেপ্টেম্বর (বৃহস্পতিবার) দুপুরে পশ্চিমভাগ গ্রামের সাবেক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলী আমজাদ তালুকদারের পুত্র সোহাগ তালুকদারের সাথে একই গ্রামের আরব আলী মিয়া ও তার পুত্র শাহীনের সাথে পুর্ব বিরোধের জেরে বাক-বিতন্ডা ও হাতাহাতির ঘঠনা ঘটে।

এ বিষয়ে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সোহাগ তালুকদার আজমিরীগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

এরই প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার মধ্যরাত আনুমানিক ৩ টায় আজমিরীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক ভুপেন্দ্র বর্মন ও পুনুয়েল হাঁচচা সহ একদল পুলিশ আরব আলীর বাড়িতে আসামী ধরতে অভিযান চালায়।

আরব আলী ও পাশের বাড়ীর লোকজন আরব আরব আলীর বাড়িতে প্রতিপক্ষের হামলা হয়েছে ভেবে পুলিশকে ধাওয়া দেয়।
এ সময় স্থানীয় লোকজনের ধাওয়া ও পিটুনিতে আজমিরীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক ভুপেন্দ্র বর্মন, পুঁনুয়েল হাচচা, শিবপাশা পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক ফুয়াদ আহমেদ সহ রাজিব দত্ত, দেলোয়ার হোসেন, হায়দার জাহান, আবু তাহের ও রুবেল মিয়া সহ আট পুলিশ সদস্য আহত হন।

শুক্রবার ভোর পাঁচটায় উপ-পরিদর্শক ভুপেন্দ্র বর্মনকে উপজেলা স্বাস্হ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয় এবং বাকি সাতজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করা হয়।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মো.মহিবুর রহমান দুলু জানান, আমি ঘুমে ছিলাম ফোনে কল পেয়ে পুলিশের উপর হামলার বিষয়টি জানতে পারি। আমি বাড়ি থেকে বের হয়ে দেখি আহত পুলিশ সদস্যরা ফিরে যাচ্ছেন।

আজমিরীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মো. মাসুক আলী বলেন, নিয়মিত মামলার আসামী ধরতে গিয়ে তাদের সাথে হাতাহাতির ঘঠনা ঘঠেছে। রাতের আঁধারে আসামীরা পালিয়ে যায়।

আমরা শুক্রবার বিকালে ঘঠনাস্থল পরিদর্শন করেছি।