• মার্চ ২, ২০২৪
  • লিড নিউস
  • 17
সিসিক মেয়রের নামে উদ্ভট দেয়াললিখন মুছে ফেলা হল

নিউজ ডেস্ক: সংবাদ প্রকাশ ও সমালোচনার মুখে পড়ে মুছে ফেলা হলো সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়রের নামে উদ্ভট দেয়াললিখন। গত বৃহস্পতিবার রাতে সিলেট নগরীর মিরের ময়দান এলাকায় সিলেট পুলিশ লাইনস উচ্চবিদ্যালয়ের সামনের সড়ক-পাশের দেয়ালের এসব লেখা মুছে ফেলা হয়। স্থানীয় কাউন্সিলরের মাধ্যমে এই দেয়াললিখনগুলো অপসারিত হয়।

এর আগে ‘মেয়রের নামে উদ্ভট দেয়াললিখন, দায় সিসিকের!’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ হয়। সংবাদে উল্লেখ ছিল ‘শহরের উচ্চস্বরতা মানসিক শান্তির শত্রু!’ ‘একটি শহর সুন্দর হতে হলে অবশ্যই তার আবহাওয়া ও বায়ুকে চমৎকার ও রোমাঞ্চিত হতে হবে’সহ পরিবেশ সুরক্ষায় একাধিক লেখা বাণীর মতো করে লেখা হয়েছে মিরের ময়দান এলাকায় একটি দেয়ালে। কিন্তু একটি বাক্যও সঠিক বা শিক্ষণীয় নয়। এসব কথা লিখে নিচে লাল হরফে আছে সিলেট সিটি করপোরেশন। তার আগে লেখা ছিল ‘আদেশক্রমে মাননীয় মেয়র’। দেয়াললিখনে ‘আদেশক্রমে মাননীয় মেয়র’ কথাটি অপসারণ করা হয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে লেখক-গবেষক হাসান মোরশেদের এই বিষয়ে একটি লেখা প্রকাশের পর।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর এ কে এ লায়েকের নেতৃত্বে এসব উদ্ভট দেয়াললিখন হয়েছে। তবে বুধবার বিকেলে খবরের কাগজের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করলে তিনি দাবি করেন, তার মাধ্যমে দেয়ালে এসব লেখা হয়নি।

মিরের ময়দান এলাকার বাসিন্দারা জানান, নাগরিক সেবার নামে সচেতনতামূলক লেখার মধ্যে কিছু উদ্ভট ও বোধগম্য নয়- এমন কথাবার্তাও রয়েছে। বাণী আকারের এসব কথার মধ্যে ‘আদেশক্রমে মাননীয় মেয়র’ লেখা ছিল। এসব সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে সপ্তাহখানেকের মাথায় ‘আদেশক্রমে’ ও ‘মাননীয় মেয়র’ মুছে ফেলা হয়েছিল।

উদ্ভট দেয়াললিখন ও মুছে ফেলা প্রসঙ্গে গতকাল শুক্রবার সিসিকের জনসংযোগ কর্মকর্তা সাজলু লস্কর বলেন, ‘এই দেয়াললিখন স্থানীয় কাউন্সিলর করিয়েছিলেন। এ ব্যাপারে মেয়র বা সংশ্লিষ্ট কোনো কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়নি। তাই এই লেখাগুলোর শব্দচয়নে ভুল ছিল। তবে যখনই এটা মেয়র মহোদয়ের দৃষ্টিগোচর হয়, তখন তিনি কাউন্সিলর সাহেবকে ডেকে সব মুছে ফেলতে বলেন। কাউন্সিলর এসব দেয়াললিখন মুছতে কালক্ষেপণ করেন। এ ঘটনার পর মেয়র মহোদয় নির্দেশনা দিয়েছেন যেকোনো জনসচেতনতামূলক মেসেজ জনগুরুত্বপূর্ণ ও জনবহুল এলাকায় দেয়াললিখন বা পোস্টারিং সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে করতে হলে কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিতে হবে এবং অবশ্যই মেয়র মহোদয়কে অবগত করতে হবে।’

মিরের ময়দান এলাকা নগরীর একটি কেন্দ্রস্থল। একাধিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অবস্থান। এ জন্য সড়ক-পাশের দীর্ঘ দেয়ালে ২০১৭ সালের ২১ ফেব্রুয়ারিতে ভাষা আন্দোলনের চিত্র স্থাপন করেছিল সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক)। তৎকালীন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর তত্ত্বাবধানে দেয়ালসহ সিলেট কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারের সামনে সিলেট মহিলা কলেজের দেয়ালে ছিল ভাষা আন্দোলনের নানা চিত্রাঙ্কন করে দেয়ালচিত্র স্থাপন করা হয়েছিল। এসব চিত্রাঙ্কন করানো হয়েছিল শিল্পীদের দিয়ে। সেই সব দেয়ালচিত্র মলিন হয়ে পড়ায় গত ২১ ফেব্রুয়ারি সেখানে কেবল সিসিকের নামে দেয়াললিখন করা হয়েছিল।