• মে ২২, ২০২৪
  • শীর্ষ খবর
  • 17
সিলেটে দুটিতে আ.লীগ, একটিতে বহিষ্কৃত বিএনপি নেতা জয়ী

নিউজ ডেস্কঃ ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে ভোট হয়ে গেলো সিলেটের সীমান্তবর্তী তিনটি উপজেলা কোম্পানীগঞ্জ, গোয়াইনঘাট ও জৈন্তাপুরে। দুটি উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ ও একটিতে বহিষ্কৃত বিএনপি নেতা বিজয়ী হয়েছেন।

মঙ্গলবার (২১ মে) রাতে বেসরকারিভাবে ঘোষিত ফলাফল ঘোষণা করেন রিটানিং কর্মকর্তা ও সিলেটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ মোবারক হোসেন।

প্রাপ্ত ফলাফলে সিলেটের সীমান্তবর্তী কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যান পদে প্রথমবার প্রার্থী হয়েই বাজিমাত করেছেন জেলা আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক মজির উদ্দিন। তিনি বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রভাবশালী নেতা শামীম আহমদকে হারিয়েছেন।

মজির উদ্দিন আনারস প্রতীকে সর্বোচ্চ ২৮ হাজার ২৭৮ ভোট পাওয়ায় তাকে বেসরকারিভাবে বিজয়ী ঘোষণা করেছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী শামীম আহমদ মোটরসাইকেল প্রতীকে পেয়েছেন ২২ হাজার ২১৩ ভোট। এ উপজেলায় মোট ভোটার এক লাখ ১৯ হাজার ৯৪২ জন।

সীমান্তবর্তী গোয়াইনঘাট উপজেলায় দুই প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। বর্তমান চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ফারুক আহমদকে হারিয়ে বিজয়ী হয়েছেন জেলা বিএনপির কোষাধ্যক্ষ (বহিষ্কৃত) শাহ আল স্বপন। তিনি ঘোড়া প্রতীকে ৪৫ হাজার ৯৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ফারুক আহমদ (মোটরসাইকেল) পেয়েছেন ২৬ হাজার ৮৬৭ ভোট। এ উপজেলায় মোট ভোটার ২ লাখ ২৯ হাজার ৯৪১ জন।

আরেক সীমান্তবর্তী জৈন্তাপুর উপজেলা চেয়ারম্যান পদে ৫ জন প্রার্থীর মধ্যে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের লিয়াকত আলী। উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক লিয়াকত আলী আনারস প্রতীকে পেয়েছেন ৩৭ হাজার ৯০৬ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী আবদুল গফ্ফার চৌধুরী (কাপ-পিরিচ) ২৪ হাজার ১০ ভোট পেয়েছেন।

এ উপজেলায় এক লাখ ৩৪ হাজার ৬১১ ভোটারের মধ্যে ৪৬টি কেন্দ্রে ৬৩ হাজার ৮৭৩ জন ভোট প্রদান করেন।